ষড়যন্ত্রকারীদের খুঁজতে তদন্ত কমিশন গঠন করুন

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে এনবিআরের আলোচনা

প্রকাশ: ২৬ আগস্ট ২০১৯      

সমকাল প্রতিবেদক

পঁচাত্তরের পনেরো আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারকে যারা হত্যা করেছে, তাদের নেপথ্যে থেকে ষড়যন্ত্রকারী চক্রকে খুঁজে বের করতে তদন্ত কমিশন গঠন করুন। গতকাল রোববার বিকেলে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে রাজধানীর কাকরাইলে আইডিবি ভবন মিলনায়তনে অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগ ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তারা এ কথা বলেন।

আলোচকরা বলেন, ওই সময় কেন নিরাপত্তা ব্যবস্থা দুর্বল ছিল, কারা দায়িত্বে অবহেলা করেছেন, কার কী ভূমিকা ছিল- এসব বিষয় গভীরভাবে খুঁজে দেখতে হবে। পৃথক তদন্ত কমিশন গঠন করে এসব বিষয় বের করে আনতে হবে। এতে ষড়যন্ত্রের স্বরূপ সহজেই উন্মোচন করা যাবে।

অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের সিনিয়র সচিব ও এনবিআর চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক। অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন এনবিআরের সদস্য গ্রেড-১ (শুল্ক্ক ও রফতানি বন্ড) সুলতান মো. ইকবাল, সদস্য গ্রেড-১ (কর প্রশাসন ও মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা) কালিপদ হালদার, অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব বিশ্বনাথ চক্রবর্তী প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুকে 'সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি' হিসেবে অভিহিত করে বলেন, তার স্বপ্ন ছিল দেশের মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তি। তার সেই স্বপ্নপূরণের অসমাপ্ত কাজ সম্পন্ন করতে হবে। তবেই তার ঋণ শোধ হবে। তিনি বলেন, জাতির জন্য বঙ্গবন্ধু দুটো যুদ্ধ রেখে গেছেন। একটি হচ্ছে রক্তাক্ত যুদ্ধ- যে যুদ্ধে ত্রিশ লাখ শহীদের আত্মত্যাগের মাধ্যমে ১৯৭১ সালে বিজয় অর্জন করেছি। অপরটি সোনালি যুদ্ধ। এ যুদ্ধে নেতৃত্ব দেবে তরুণ প্রজন্ম- যারা দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে।

আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, বঙ্গবন্ধু একটি নাম, একটি বিশ্বাস, একটি পতাকা। বঙ্গবন্ধুকে কখনই ভুলব না। আসুন সবাই মিলে অঙ্গীকার করি, এই দেশকে সবার ওপর নিয়ে যেতে হবে। তবেই তার স্বপ্ন পূরণ হবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক ১৫ আগস্টকে ইতিহাসের 'অন্ধকার অধ্যায়' হিসেবে অভিহিত করে বলেন, পুরো ঘটনার ষড়যন্ত্রে যারা নেপথ্যে জড়িত ছিলেন, তাদের চক্রজাল খুঁজে বের করতে হলে তদন্ত কমিশন গঠন করতে হবে। তিনি বলেন, ১৯৭৫-এর ১৫ আগস্টের হত্যাকাণ্ড এবং ২০০৪-এর ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলার ঘটনা একই সূত্রে গাঁথা। ষড়যন্ত্র এখনও চলছে। এর বিরুদ্ধে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে।

এনবিআর চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেই ভূঁইয়া বলেন, বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত কাজগুলো শেষ করতে হবে। সরকারি কর্মকর্তা হিসেবে সবাই সততার সঙ্গে কাজ করলে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণে সহায়ক হবে।