কোনো বাধা মানবো না

টাকার অভাবে ভর্তি অনিশ্চিত ইমরানের

প্রকাশ: ২১ অক্টোবর ২০১৯      

উলিপুর (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি

আল ইমরানের চিকিৎসক হওয়ার স্বপ্ন কি ভেঙে যাবে? ছোটবেলা থেকে চিকিৎসক হওয়ার স্বপ্ন ছিল তার। দিনমজুর বাবা-মাও স্বপ্ন দেখতেন, ছেলে লেখাপড়া করে অভাবী সংসারের হাল ধরবে। দীর্ঘদিনের লালিত স্বপ্ন পূরণে আর্থিক সংকট বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজে সুযোগ পেয়েও অর্থের অভাবে ভর্তি হতে পারছেন না এ মেধাবী শিক্ষার্থী।

কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলার গুনাইগাছ ইউনিয়নের কৃষ্ণমঙ্গল গ্রামের আল ইমরান ২০১৭ সালে স্থানীয় কৃষ্ণমঙ্গল স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এসএসসি এবং ২০১৯ সালে উলিপুর মহারানী স্বর্ণময়ী স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হন।

অদম্য মেধাবী আল ইমরান সিলেট মেডিকেল কলেজে ভর্তি পরীক্ষায় মেধা তালিকায় স্থান পেলেও আর্থিক সংকটে ভর্তি হওয়া নিয়ে দেখা দিয়েছে অনিশ্চয়তা। সমাজের বিত্তবান মানুষ এগিয়ে এলে  মেধাবী  আল ইমরানের চিকিৎসক হওয়ার ইচ্ছা পূরণ হবে। ইমরান জানান, চিকিৎসক হবেন বলে তিনি দরিদ্র বাবার সঙ্গে দিনমজুরের কাজ করে লেখাপড়া চালিয়েছেন। এখন সে স্বপ্ন ভেঙে যাওয়ার উপক্রম। চিকিৎসাসেবা দিয়ে গ্রামের হতদরিদ্র মানুষের পাশে থাকতে চান- এমনটাই স্বপ্ন ছিল তার।

আল ইমরানের বাবা আহাদ আলী বলেন, 'হামরা গরিব মানুষ, দুঃখে-কষ্টে ছাওয়াটাক পড়ালেখা করাইছি। এল্যা বলে ফির মেলা ট্যাকা নাগবে। কনটে পাইম বাবা এত ট্যাকা।'