ইউএনও এলে ৩০ টাকা চলে গেলে ৫০

প্রকাশ: ১৮ অক্টোবর ২০২০

হরিণাকুণ্ডু (ঝিনাইদহ) ও কাপাসিয়া (গাজীপুর) প্রতিনিধি

ইউএনও আসছেন, এমন খবরে সঙ্গে সঙ্গেই ৫০ থেকে ৩০ টাকায় নেমে আসে আলুর দাম। ইউএনও চলে গেলে ফের ৫০ টাকা কেজি দরে শুরু হয় বিক্রি। গতকাল শনিবার ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডু উপজেলার হরিণাকুণ্ডু বাজারে গিয়ে দেখা যায় এমন চিত্র। এ নিয়ে ক্রেতা-বিক্রেতার মধ্যে বাগ্‌বিতণ্ডাও লক্ষ্য করা যায়।

সরকারের বেঁধে দেওয়া দামে আলু বিক্রি নিশ্চিত করতে বাজার নিয়ন্ত্রণে সারাদেশের মতো হরিণাকুণ্ডুতেও চলছে প্রশাসন ও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান। করা হচ্ছে জরিমানাও। কিন্তু কোনো কিছুতেই নিয়ন্ত্রণে আসছে না আলুর বাজার। অভিযান শেষ হলেই আবার দাম বাড়িয়ে দিচ্ছেন ব্যবসায়ীরা। এদিকে গাজীপুরের কাপাসিয়ায় বাজার থেকে উধাও হয়ে গেছে আলু। গতকাল সারাদিন এখানে আলু মেলেনি।

গতকাল শনিবার ও গত শুক্রবার হরিণাকুণ্ডু উপজেলার রিশখালী, দখলপুর, পার্বতীপুর, উপজেলা মোড় দৈনিক বাজার, হরিণাকুণ্ডু, কুলবাড়িয়া, ভবানিপুরসহ বেশকিছু বাজারে অভিযান চালানো হয়। এ সময় সরকারের বেঁধে দেওয়া দামের অতিরিক্ত মূল্যে আলু বিক্রি করায় অন্তত ১০ জন খুচরা ব্যবসায়ীকে জরিমানা করা হয়। খুচরা ব্যবসায়ী খাইরুল ইসলাম বলেন, পাইকার-মহাজনের কাছ থেকে ৪৬ টাকা কেজি দরে দুই মণ আলু কিনে এনে বাজারে বিক্রি করছি। নিজে ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে তো আর ৩০ টাকা দরে বিক্রি করতে পারি না।

ইউএনও সৈয়দা নাফিস সুলতানা বলেন, ভ্রাম্যমাণ আদালতের কঠোর অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এদিকে ভোক্তা পর্যায়ে সরকার নির্ধারিত দামে আলু বিক্রি করার বিজ্ঞপ্তি জারি ও বাজার তদারকির পর গতকাল সারাদিন গাজীপুরের কাপাসিয়া বাজারের কোনো দোকানে আলু পাওয়া যায়নি। হঠাৎ করে বাজার থেকে আলু উধাও হয়ে যাওয়ায় ক্রেতারা বিপাকে পড়েন।

ইউএনও ইসমত আরা গত শুক্রবার সকালে কাপাসিয়া বাজার তদারকি করেন। এ সময় বিক্রেতারা ৩০ টাকা দরে আলু বিক্রি শুরু করলে ক্রেতাদের উপচেপড়া ভিড় লেগে যায়। কিন্তু কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে শুক্রবার বিকেলে বাজারে আলুর সংকট দেখা দেয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক আলু বিক্রেতা জানান, মোকাম থেকে ৪৩ টাকা দরে আলু কিনে ৩০ টাকা দরে বিক্রি করায় এক দিনেই তাদের ১৫-২০ হাজার টাকা লোকসান গুনতে হয়েছে। ফলে সরকার যদি পাইকারি বাজার নিয়ন্ত্রণ না করে খুচরা বাজারে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর করে, তবে তাদের পক্ষে আলু বিক্রি করা সম্ভব হবে না।