বাংলাদেশ এখন সন্ত্রাসের ব্যাধিতে আক্রান্ত: মির্জা ফখরুল

প্রকাশ: ১৯ জানুয়ারি ২০২১

সমকাল প্রতিবেদক

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বাংলাদেশ এখন সন্ত্রাসের ব্যাধিতে আক্রান্ত। বিনা ভোটে স্থানীয় ক্ষমতা আয়ত্তে নিতে বিরোধী নেতাকর্মীদের রক্তে হাত রঞ্জিত করা হচ্ছে। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মধ্যরাতে ব্যালট বাক্স ভর্তি করে ক্ষমতা দখলের ধারাবাহিকতায় পৌর নির্বাচনগুলোতেও সহিংস সন্ত্রাসে উদ্বুদ্ধ হয়েছে সরকারের মদদপুষ্ট দুর্বৃত্তরা। গতকাল সোমবার এক বিবৃতিতে এসব কথা বলেন তিনি।

মির্জা ফখরুল আরও বলেন, দেশব্যাপী চলমান পৌর নির্বাচনগুলোতে জনগণের কোনো সাড়া নেই। কারণ বর্তমান সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচনকে জনগণ বিশ্বাসযোগ্য মনে করে না। এই সরকার জনগণের আস্থা থেকে অনেক দূরে সরে গেছে। বিরোধী দলহীন একদলীয় শাসনই এই সরকারের টিকে থাকা একমাত্র ভরসা। তাই দেশকে বিরোধী দলহীন করার জন্য সরকার তাদের সরকারি যন্ত্রকে যত্রতত্রভাবে ব্যবহার করছে। বিএনপিসহ বিরোধী দলকে নিশ্চিহ্নকরণের যাবতীয় উদ্যোগ আয়োজনে কোনো কমতি নেই। গণতন্ত্রহীনতা ও অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচনের অনুপস্থিতির কারণেই নির্বাচন  নিয়ে দুর্বৃত্তদের দৌরাত্ম্য বেড়েই চলেছে।

বরিশালের গৌরনদী পৌরসভা নির্বাচনী সভা চলাকালে সাবেক এমপি ও কেন্দ্রীয় বিএনপি নেতা জহির উদ্দিন স্বপনের বাসভবনে হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে দেওয়া বিবৃতিতে তিনি বলেন, জহির উদ্দিন স্বপনের বাসভবনে আওয়ামী সন্ত্রাসীদের হামলা এবং নেতাকর্মীদের আহত করা আওয়ামী সন্ত্রাসের আরও একটি ন্যক্কারজনক উদাহরণ। সরকার সন্ত্রাস, হুমকি ও আতঙ্ক সৃষ্টি করেই ক্ষমতায় টিকে থাকতে চায়।

ফখরুল বলেন, জহির উদ্দিন স্বপনের বাসভবনে হামলা ও নেতাকর্মীদের আহত করার ঘটনা নিঃসন্দেহে সুপরিকল্পিত আক্রমণ। এই হামলার ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং আহতদের আশু সুস্থতা কামনা করছি। এই সন্ত্রাসী ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবি জানাচ্ছি।