কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা পৌরসভা নির্বাচনে ভেড়ামারা পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে দায়িত্ব পালন করা সেই প্রিসাইডিং কর্মকর্তা ও তার পরিবারকে নিরাপত্তা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। নিরাপত্তা শঙ্কার কথা জানিয়ে এক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমান সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট (ভার্চুয়াল) বেঞ্চ গতকাল বৃহস্পতিবার এ আদেশ দেন। আগামী ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত পুলিশের আইজিকে এ নিরাপত্তা দিতে বলা হয়েছে।

গত ১৬ জানুয়ারি নির্বাচন চলার সময় ওই ভোটকেন্দ্রেই পুলিশ সুপার এসএম তানভীর আরাফাত দায়িত্বরত জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম মো. মহসিন হাসানের সঙ্গে 'অসৌজন্যমূলক' আচরণ করেন বলে অভিযোগ উঠেছে। ওই কেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তার দায়িত্বে থাকা উপজেলার যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মো. শাহজাহান আলী সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

গতকাল আদালতে এ-সংক্রান্ত মামলার শুনানিতে যুক্ত হয়ে শাহজাহান আলী নিজের এবং পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করলে আদালত এ আদেশ দেন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সারওয়ার হোসেন বাপ্পি।

পরে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সাংবাদিকদের বলেন, আদালত শাহজাহান আলীর কাছে জানতে চেয়েছিলেন- তিনি কী বলতে চান। তিনি অভিযোগ করেন, বুধবার গোয়েন্দা সংস্থার কিছু লোক তাকে উঠিয়ে নিয়ে গিয়েছিল। তার কাছ থেকে কিছু কাগজপত্রে সই-স্বাক্ষরও নিয়েছে।

এর আগের দিন হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ ভেড়ামারা পৌরসভা নির্বাচনে জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম মহসিন হাসানের সঙ্গে 'অসৌজন্যমূলক' আচরণ ও স্থানীয় সরকার নির্বাচন বিধিমালা 'লংঘন'-এর অভিযোগ বিষয়ে ব্যখ্যা দিতে পুলিশ সুপার এসএম তানভীর আরাফাতকে তলব করেন।

মন্তব্য করুন