দেশের নদীকেন্দ্রিক পর্যটন শিল্পের বিকাশে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের অধীনে বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নিয়েছে সরকারের টুরিজম বোর্ড ও পর্যটন করপোরেশন। এরই অংশ হিসেবে গতকাল বৃহস্পতিবার মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ে শিমুলিয়া ঘাট থেকে ঢাকা ক্রুজ অ্যান্ড লজিস্টিকসের আয়োজনে 'পদ্মা ক্রুজ' নামে প্রমোদতরী উদ্বোধন করা হয়। এতে চড়ে পদ্মা সেতু দেখার সুযোগ পাবেন পর্যটকরা। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বেসামরিক বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, জাতীয় পর্যটন উন্নয়ন নীতিমালায় নৌ-পর্যটন উন্নয়নে গুরুত্ব আরোপ করা হয়েছে। এ ছাড়া দেশের পর্যটন শিল্পের সমন্বিত উন্নয়নে যে পর্যটন মহাপরিকল্পনা প্রণয়ন হচ্ছে, সেখানেও নৌ-পর্যটনকে গুরুত্বের সঙ্গে

বিবেচনা করা হচ্ছে। নৌ-পর্যটন টেকসই পর্যটন উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের অহঙ্কার পদ্মা সেতু। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃঢ নেতৃত্বে পদ্মা সেতু বাস্তবতা। এটি আমাদের উন্নয়ন সক্ষমতার প্রতীক।

পদ্মা ক্রুজে থাকবে দুটি ভিন্ন প্যাকেজ। মাওয়া ঘাট থেকে প্রতিদিন ডে ক্রুজ সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা এবং বৈকালিক ক্রুজ ২টা থেকে বিকেল ৫টায় পরিচালিত হবে। নৌভ্রমণ প্যাকেজে অন্তর্ভুক্ত থাকবে দুপুরের খাবার ও হালকা নাশতা এবং সার্বক্ষণিক চা ও কফি। পর্যটকদের চাহিদা অনুযায়ী ভ্রমণ সূচি ও খাবার মেন্যু পরিবর্তনেরও সুযোগ রয়েছে। খরচ পড়বে এক হাজার থেকে এক হাজার ৮০০ টাকা।

ঢাকা ক্রুজ অ্যান্ড লজিস্টিকসের চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন হেলালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন প্রতিমন্ত্রীর সহধর্মিণী শামীমা জাফরিন, টুরিজম বোর্ডের উপপরিচালক হাজেরা খাতুন, লৌহজং উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আসাদুজ্জামান প্রমুখ।





মন্তব্য করুন