'নান্দনিক চলচ্চিত্র, মননশীল দর্শক, আলোকিত সমাজ'- প্রতিপাদ্য নিয়ে ৯ দিনের 'ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব ২০২১'-এর ষষ্ঠ দিন ছিল গতকাল বৃহস্পতিবার। রাজধানীর মোট আটটি মিলনায়তনে প্রদর্শিত হচ্ছে উৎসবের চলচ্চিত্রগুলো। তবে করোনাজনিত পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে এবারই প্রথম অনলাইনেও উৎসবের চলচ্চিত্র দেখার ব্যবস্থা করেছে উৎসব কর্তৃপক্ষ। লাগভেলকি ওয়েব লিংক (https://lagvelki.com) থেকে যে কেউ দেখতে পাবেন উৎসবের চলচ্চিত্রগুলো।

গতকাল বৃহস্পতিবারও ছিল উৎসবের প্রতিটি প্রদর্শনীতে উপচে পড়া ভিড়। গতকাল 'সিনেমা অব দ্য ওয়ার্ল্ড' বিভাগে দেখানো হয় ইউক্রেন, ইউএসএ, বুলগেরিয়া ও স্লোভাকিয়ার যৌথ প্রযোজনার ছবি 'স্টকিং চেরনোবাইল'। ৫৯ মিনিটের এ ছবিটি পরিচালনা করেছেন ব্রাজিলের লারা লি। রেট্রোস্পেকটিভ বিভাগে প্রদর্শিত হয় ইরানের ছবি 'দ্য ইটারনাল কিডস'। এশিয়ান ফিল্ম প্রতিযোগিতা বিভাগে প্রদর্শিত হয় মঙ্গোলিয়ার নির্মাতা অটগোনজুরিগ বাতচুলুনের 'দ্য উইমেন'। এ ছাড়া প্রদর্শিত হয় মালয়েশিয়ার ছবি

জ্যাকি ইয়াপ নির্মিত 'সামটাইম সামটাইম' ও ভারতের গিরিস কাসাবালির চলচ্চিত্র 'ক্যান নাইদার বি হিয়ার নর জার্নি'।

উৎসবের ছবিগুলো একযোগে প্রদর্শিত

হচ্ছে জাতীয় জাদুঘরের প্রধান মিলনায়তন ও কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তন, পাবলিক লাইব্রেরির শওকত ওসমান স্মৃতি মিলনায়তন, শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা, নৃত্যকলা কেন্দ্র মিলনায়তন ও নন্দনমঞ্চ, বসুন্ধরা সিটির স্টার সিনেপ্লেক্স এবং সীমান্ত স্কয়ার সিনেপ্লেক্সে। চলচ্চিত্রগুলোকে এশিয়ান ফিল্ম প্রতিযোগিতা বিভাগ, রেট্রোস্পেকটিভ বিভাগ, বাংলাদেশ প্যানারোমা, সিনেমা অব দ্য ওয়ার্ল্ড, চিলড্রেন ফিল্মস, স্পিরিচুয়াল ফিল্মস, লিজেন্ডারি লিডারস- হু চেঞ্জ দি ওয়ার্ল্ড, ট্রিবিউট শর্ট অ্যান্ড ইনডিপেনডেন্ট ফিল্ম এবং উইমেন্স ফিল্ম মেকার এই ৯টি বিভাগে দেখানো হচ্ছে।

এবারের উৎসবে বাংলাদেশসহ ৭৩টি দেশের ২২৬টি চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হচ্ছে। যার মধ্যে পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র রয়েছে ১০৭টি, স্বল্পদৈর্ঘ্য ও স্বাধীন চলচ্চিত্রের সংখ্যা ১২০টি। ৩৩টি স্বল্পদৈর্ঘ্য ও স্বাধীন এবং আটটি পূর্ণদৈর্ঘ্য নিয়ে উৎসবে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র রয়েছে ৪১টি। আগামী ২৪ জানুয়ারি শেষ হবে ৯ দিনের এই চলচ্চিত্র উৎসব।

মন্তব্য করুন