যেসব উপজেলায় আগামী ৩০ জানুয়ারি পৌরসভা নির্বাচন হবে, সেসব উপজেলার জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের (জামুকা) অনুমোদন ছাড়া গেজেটভুক্ত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের যাচাই-বাছাই ৬ ফেব্রুয়ারি করা হবে। এ ছাড়া পৌরসভা নির্বাচন নেই, এমন উপজেলাগুলোতে পূর্বনির্ধারিত সূচি অনুযায়ী ৩০ জানুয়ারি সকাল ১০টায় উপজেলা পর্যায়ে ইউএনওর কার্যালয় এবং মহানগর পর্যায়ে ডেপুটি কমিশনারের কার্যালয়ে এই যাচাই-বাছাই হবে। জামুকার এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

গত ১৯ ডিসেম্বর এই যাচাই হওয়ার কথা থাকলেও তালিকা প্রণয়নের জটিলতায় তা প্রথমে ৯ জানুয়ারি, পরে ৩০ জানুয়ারি নির্ধারণ করা হয়। জামুকার সবশেষ বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, কোনো বীর মুক্তিযোদ্ধার নাম ভারতীয় তালিকা বা লাল মুক্তিবার্তা বা মন্ত্রণালয়ের স্বীকৃত ৩৩ ধরনের প্রমাণে অন্তর্ভুক্ত থাকলে তিনি যাচাই-বাছাইয়ের আওতাবহির্ভূত থাকবেন। এ ধরনের কোনো বীর মুক্তিযোদ্ধার নাম ভুলক্রমে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় বা জামুকার ওয়েবসাইটে বাছাইযোগ্য তালিকায় প্রকাশিত হয়ে থাকলে তালিকা থেকে নাম বাদ দেওয়ার জন্য উপযুক্ত প্রমাণসহ সংশ্নিষ্ট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় বা মহানগরের ক্ষেত্রে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।

মন্তব্য করুন