সাপ্তাহিক ছুটির দিনেও উচ্ছেদ ও পরিচ্ছন্নতা অভিযান চালিয়েছে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন। ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) মিরপুর ১ নম্বরে ও ১১ নম্বর বিহারিপল্লি এলাকায় এবং দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) তিনটি খাল ও বক্সকালভার্ট থেকে বর্জ্য অপসারণ কাজ চালায়।

ডিএসসিসি জানায়, খাল উদ্ধার অভিযানের অংশ হিসেবে গতকাল জিরানী, মান্ডা ও শ্যামপুর খাল থেকে বর্জ্য অপসারণ করা হয়। মান্ডা খালের মান্ডা ব্রিজ থেকে কদমতলী অংশের প্রায় ৩০০ মিটার খালের সীমানা চিহ্নিত করে দখলমুক্ত করা হয়েছে। মান্ডা ও শ্যামপুর খাল থেকে এবং টিটিপাড়ার পাম্প হাউসের মধ্যকার বর্জ্য অপসারণ করা হয়।

এদিকে ডিএনসিসির নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এজেডএম শফিউল আলম ও তাজওয়ার আকরাম সাকোপির নেতৃত্বে মিরপুর ১ নম্বর এলাকা থেকে শতাধিক অবৈধ টঙদোকান ও স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। এ ছাড়া সম্প্রতি মিরপুরের বিহারিপল্লি এলাকায় চলা উচ্ছেদ অভিযানের বর্জ্য অপসারণ করা হয়।

এদিকে বিহারিপল্লি এলাকায় ডিএনসিসির উচ্ছেদ অভিযানের প্রতিবাদে গতকাল উচ্ছেদ স্থলের পাশে মানববন্ধন করে উর্দু স্পিকিং পিপলস ইউথ রিহ্যাবিলিটেশন মুভমেন্ট, ওয়েলফেয়ার মিশন অব বিহারিজ ও এসপিজিআরসি নামের তিনটি সংগঠন। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, স্বাধীনতার পর থেকে বিহারিরা বসবাস করছে। এখন সেগুলোকে অবৈধ বলে ভেঙে দেওয়া হচ্ছে। অথচ বঙ্গবন্ধুই বিহারিদের থাকার জন্য ক্যাম্প করে দিয়েছিলেন। তাদের উচ্ছেদ করা যাবে না বলে আদালতেরও নির্দেশনা রয়েছে।

মন্তব্য করুন