একুশের চেতনায় গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার অঙ্গীকার বিএনপির

প্রকাশ: ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১

সমকাল প্রতিবেদক

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে একুশের চেতনায় গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছে বিএনপি। গতকাল রোববার সকালে ভাষাশহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের পর দলের চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান সাংবাদিকদের সামনে এ প্রত্যয় তুলে ধরেন।

আমান উল্লাহ আমান বলেন, আজ গণতন্ত্র ভূলুণ্ঠিত। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, একুশের চেতনা সবকিছুই ভূলুণ্ঠিত। বাষট্টির আন্দোলনে আমরা শিক্ষার অধিকার পেয়েছিলাম। একাত্তরে অনেক শহীদের রক্তের বিনিময়ে স্বাধীনতা পেয়েছিলাম। নব্বইয়ের স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে শহীদ মিলনদের রক্তের বিনিময়ে পেয়েছিলাম গণতন্ত্র। তিনি বলেন, কিন্তু এসব অর্জন আমরা ধরে রাখতে পারিনি। তিনি বলেন, আজ দেশে গণতন্ত্র অনুপস্থিত। এই দিনে আমাদের দৃপ্ত শপথ- এই অনির্বাচিত সরকারের পতন ঘটিয়ে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনা।

দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, বর্তমানে মাফিয়া ও স্বৈরতন্ত্রের মাধ্যমে দেশ পরিচালিত হচ্ছে। সরকার দেশে একদলীয় শাসন ব্যবস্থা কায়েম করেছে। তিনি বলেন, বাহান্নর রক্তস্নাত অমর একুশে ফেব্রুয়ারির দিন আমাদের আজও উদ্বুদ্ধ করে। বাহান্নর চেতনা আমাদের শানিত করেছে বলেই আজও আমরা এই কর্তৃত্ববাদী শাসনের বিরুদ্ধে লড়াই করে যাচ্ছি।

বিএনপি নেতা ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন বলেন, গত ১৩ বছর ধরে দেশে গণতন্ত্র নেই। দেশের পাড়া-মহল্লার যারা সন্ত্রাসী ছিল, তারা এখন দেশের নীতি নিয়ন্ত্রণ করে। জনগণের উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনাদের চেতনাকে জাগ্রত করুন। স্বাধীনতাকে কীভাবে রক্ষা করতে হয়, সেটি দেখিয়ে দিন।

এই সময় দলের চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, খায়রুল কবীর খোকন, হাবিব-উন নবী খান সোহেল, কেন্দ্রীয় নেতা শামা ওবায়েদ, মীর সরফত আলী সপু, আমিনুল হক, মীর নেওয়াজ আলী নেয়াজ, শামীমুর রহমান শামীম, নাজিম উদ্দিন আলম, যুবদলের সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু, স্বেচ্ছাসেবক দলের আবদুল কাদির ভুঁঁইয়া জুয়েল, ছাত্রদলের ফজলুর রহমান খোকন, ইকবাল হোসেন শ্যামলসহ অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সকালে বলাকা সিনেমা হলের কাছে বিএনপি নেতাকর্মীরা সমবেত হয়ে প্রভাতফেরি করেন। তারা আজিমপুরে ভাষাশহীদদের কবরে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে ফাতেহা পাঠ করেন। এর পর তারা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে যান।