নিখোঁজের তিন মাস পর মিলল কঙ্কাল

পোশাক দেখে শনাক্ত করলেন স্ত্রী

প্রকাশ: ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১

সমকাল প্রতিবেদক

সাড়ে তিন মাসেরও বেশি সময় নিখোঁজ ছিলেন রাজধানীর রূপনগরের বাসিন্দা একাধিক মাদক মামলার আসামি নুরুল ইসলাম গাজী (৫০)। গত শনিবার পাওয়া গেছে তাকে। তবে জীবিত নয়, তার কঙ্কাল উদ্ধার করেছে পুলিশ। মাংসপেশি না থাকায় চেনার উপায় নেই কোনোভাবেই। কঙ্কালের গায়ে থাকা জামা দেখে গাজীকে শনাক্ত করেন তার স্ত্রী রহিমা বেগম।

রূপনগর থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ সমকালকে বলেন, লাশ পচে গলে কঙ্কাল বেরিয়ে গেছে। কিন্তু তার শরীরের কাপড় নষ্ট হয়নি। গায়ে হাফহাতা নীল-সাদা প্রিন্টের জামা এবং পরনে কালো রঙের গ্যাবার্ডিন প্যান্ট ছিল। ডিএনএ পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

পুলিশ জানিয়েছে, গত বছরের ১ নভেম্বর নুরুল ইসলাম গাজী নিখোঁজ হন। খোঁজ না পেয়ে ৪ নভেম্বর তার স্ত্রী রূপনগর থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন। গত ১১ ফেব্রুয়ারি সেটি অপহরণ মামলায় রূপান্তর করেন বাদী। আসামি করা হয় একই এলাকার রয়েল, কালু ও শাকিলসহ চারজনকে। আসামিরা মাদক ব্যবসায়ী ও সেবনকারী। কালু ও রয়েলসহ তিনজনকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। কিন্তু তখনও নিখোঁজ ব্যক্তির সন্ধান মেলেনি। শনিবার রূপনগর বেড়িবাঁধের পাশে নির্জনস্থানে এক ব্যক্তির কঙ্কাল পড়ে থাকতে দেখে থানায় খবর দেন। গাজী যেহেতু নিখোঁজ ছিলেন, তাই তার স্ত্রীকে ডেকে সেটি দেখায় পুলিশ। পরে পোশাক দেখেই তাকে শনাক্ত করা হয়। রহিমা পুলিশকে জানান, ঘটনার দিন তার স্বামী ওই জামা ও প্যান্ট পরে বাসা থেকে বের হয়েছিলেন।

পুলিশের মিরপুর বিভাগের দায়িত্বশীল এক পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, নিহত নুরুল ও আসামিরা মাদক ব্যবসায়ী। তাদের মধ্যে মাদক ব্যবসা নিয়ে দ্বন্দ্বে এ হত্যাকাণ্ড ঘটে থাকতে পারে।