সংক্ষিপ্ত আয়োজনে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উদযাপন

আন্দোলন স্থগিতে শান্ত হচ্ছে ক্যাম্পাস

প্রকাশ: ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১

বরিশাল ব্যুরো

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার এক দশক পূর্ণ হয়েছে গতকাল সোমবার। করোনাকালে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকায় সংক্ষিপ্ত কর্মসূচির মাধ্যমে দিনটি উদযাপন করা হয়। এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও রূপাতলী বাস টার্মিনালের বাস মালিক-শ্রমিকদের মধ্যে উত্তপ্ত পরিস্থিতি ক্রমশ উন্নতির দিকে যাচ্ছে। এতে শান্ত পরিস্থিতি ফিরছে ক্যাম্পাসের পাশাপাশি টার্মিনাল এলাকায়ও।

গতকাল সকালে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের সঙ্গে উপাচার্য অধ্যাপক মো. ছাদেকুল আরেফিন জাতীয় পতাকা এবং মানবিক অনুষদের ডিন ড. মুহাসিন উদ্দিন বিশ্ববিদ্যালয়ের পতাকা উত্তোলন করে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন কর্মসূচির সূচনা করেন। পরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করা হয়। দিনটি উপলক্ষে আলোচনা সভার প্রধান অতিথি বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক কাজী শহীদুল্লাহ অনুষ্ঠানে অনলাইনে যুক্ত ছিলেন।

উপাচার্য ছাদেকুল আরেফিনের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য দেন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি আরিফ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক ড. খোরশেদ আলম, অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি বাহাউদ্দীন গোলাপ, গ্রেড ১১-১৬ কল্যাণ পরিষদের সভাপতি ফয়সাল কিবরিয়া, ১৭-২০ কল্যাণ পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান।

এদিকে মহাসড়ক অবরোধ কিংবা পরিবহন ধর্মঘটের মতো কঠিন কর্মসূচি স্থগিত করায় বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও রূপাতলী বাস টার্মিনাল এলাকায় শান্তিপূর্ণ অবস্থা বিরাজ করছে। দু'পক্ষই বলেছে, চরমোনাইর বার্ষিক ওয়াজ মাহফিলে আসা মুসল্লিদের দুর্ভোগ এড়াতে তারা কর্মসূচি থেকে বিরত থাকবেন।

কাল বুধবার চরমোনাইতে তিন দিনব্যাপী বার্ষিক ওয়াজ মাহফিল শুরু হবে। সরাসরি সড়কপথে সেখানে পৌঁছাতে রূপাতলী বাস টার্মিনাল ও বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা অতিক্রম করতে হয়।

বরিশাল-পটুয়াখালী মিনিবাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক কাওছার হোসেন শিপন জানান, রোববার রাতে পরিবহন মালিক ও শ্রমিক সংগঠন যৌথ সভা করেছে। ওই সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে, সোমবার থেকে তিন দিন পরিবহন ধর্মঘট স্থগিত থাকবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের নেতৃত্ব দেওয়াদের অন্যতম সুজয় শুভ বলেন, তারা আপাতত মহাসড়ক অবরোধ করবেন না। তবে অন্যান্য কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।