ইজিবাইক আটক করায় নিজের পেটে ছুরি চালালেন চালক

প্রকাশ: ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১

সিদ্ধিরগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি

হনারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে ট্রাফিক পুলিশ ইজিবাইক আটক করায় নিজের পেটে ছুরি চালিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন চালক জুম্মন মিয়া (৩০)। গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে কাঁচপুর সেতুর পশ্চিম পাশে শিমরাইলের ট্রাফিক পুলিশের ডাম্পিং স্টেশনে এ ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত অবস্থায় জুম্মন মিয়াকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি তেরা মার্কেট এলাকার একটি বাসায় ভাড়া থাকেন।

সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইলের দায়িত্বে নিয়োজিত ট্রাফিক পুলিশের টিআই শেখ এমএ করিম জানান, সকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের শিমরাইল মোড়ের ডাচ্‌-বাংলা ব্যাংক ইউটার্ন এলাকায় দুটি ব্যাটারিচালিত ইজিবাইকের সংঘর্ষ বাধে। এতে একটি ইজিবাইক মহাসড়কের ওপর উল্টে গিয়ে যানজটের সৃষ্টি করে। খবর পেয়ে শিমরাইল এলাকার রেকারের দায়িত্বে থাকা ট্রাফিক পুলিশের এটিএসআই রাশেদুল ইসলাম ঘটনাস্থলে গিয়ে ইজিবাইকটি উদ্ধার করে শিমরাইল সাজেদা হাসপাতালের পাশে ডাম্পিং স্টেশনে নিয়ে রেখে দেন। এর কিছুক্ষণ পর ইজিবাইক চালক জুম্মন ডাম্পিং স্টেশনের পাশে গিয়ে নিজেই তার পেটে ছুরি ঢুকিয়ে দেন। স্থানীয়রা এ ঘটনা দেখে ট্রাফিক পুলিশকে জানালে তারা সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশের সহায়তায় জুম্মনকে উদ্ধার করে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে ঢাকা মেডিকেলে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

স্থানীয়দের অভিযোগ- মহাসড়কে অবৈধ লেগুনা, সিএনজি, ইজিবাইক ও ব্যাটারিচালিত রিকশা অবাধে চলাচল করায় প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটছে।