স্বামীর শাস্তি দাবিতে গৃহবধূর লাশ নিয়ে বিক্ষোভ

প্রকাশ: ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১

সমকাল প্রতিবেদক

রাজধানীর ভাটারায় তানিয়া আক্তার আঁখি নামে গৃহবধূর লাশ নিয়ে বিক্ষোভ করেছেন স্বজনরা। তার স্বামী মো. তালহার শাস্তির দাবি এবং এক আসামিকে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগে সোমবার বিকেলে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন তারা।

গত রোববার রাতে তালহার বাসায় আঁখির মৃত্যু হয়। স্বজনদের অভিযোগ, আঁখিকে হত্যার পর আত্মহত্যার নাটক সাজাতে ভবনের ছাদ থেকে ফেলে দেওয়া হয়। পুলিশের প্রাথমিক ধারণা, এটি আত্মহত্যা। আত্মহত্যায় প্ররোচনার মামলায় তালহাকে গ্রেপ্তার করে দুই দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। মামলার অপর আসামি লাকীকে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে পুলিশের বিরুদ্ধে। তবে পুলিশ বলছে, লাকীকে গ্রেপ্তার করা যায়নি। তাকে ধরতে অভিযান অব্যাহত আছে।         

আঁখির চাচা রহিম আহমেদ আকাশ জানান, আঁখির বাবার বাসা কুড়িল এলাকায়। প্রায় ১০ বছর আগে গুলশানের মানিএক্সচেঞ্জ ব্যবসায়ী তালহার সঙ্গে তার বিয়ে হয়। বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার আই ব্লকে একটি বাড়ির আট তলায় বাস করতেন স্বামী-স্ত্রী। তাদের মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া হতো।

পুলিশ জানিয়েছে, রোববার রাতে তালহাকে আটক করে জরুরি সেবা ৯৯৯-এ ফোন দেয় প্রতিবেশীরা। পরে বাসার নিচ থেকে আঁখির লাশ উদ্ধার করা হয়। আটক করা হয় তালহাকে। মৃত নারীর বাবা তমিজ উদ্দিন ভাটারা থানায় অপমৃত্যু মামলা করেছেন। মামলায় তালহা ও তার বোন লাকীকে আসামি করা হয়েছে। আঁখির চাচা দাবি করেন, তাদের পক্ষের লোকজন লাকীকে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। তবে পুলিশ তাকে মোটরসাইকেলে বাসায় পৌঁছে দিয়ে গেছে।

ভাটারা থানার ওসি মোক্তারুজ্জামান বলেছেন, লাকীকে কেউ পুলিশের কাছে সোপর্দ করেনি। পুলিশ লাকীকে খুঁজছে।