ভোট সুষ্ঠু হচ্ছে না মানতে রাজি নন সিইসি

প্রকাশ: ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১

যশোর অফিস ও কেশবপুর প্রতিনিধি

ভোট সুষ্ঠু হচ্ছে না মানতে রাজি নন সিইসি

সোমবার কেশবপুরে পৌরসভা নির্বাচন নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দেন সিইসি কে এম নূরুল হুদা- সমকাল

ভোট সুষ্ঠু হচ্ছে না- এ কথা একেবারেই মানতে নারাজ প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা। তিনি বলেন, 'পৃথিবীর সব স্থানেই নির্বাচনে কিছু সহিংস ঘটনা ঘটে। প্রতিযোগিতামূলক নির্বাচন হলে মানুষের মধ্যে সহনশীলতার অভাব দেখা দেয়; কিন্তু আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তা দ্রুত প্রশমনও করে। ফলে নির্বাচন সুষ্ঠু হচ্ছে না, মানুষ ভোট দিচ্ছে না, এসব কথা মানতে একেবারেই রাজি নই আমি।'

গতকাল সোমবার দুপুরে যশোরের কেশবপুরে পৌরসভা নির্বাচন নিয়ে সংশ্নিষ্টদের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন সিইসি।

কেশবপুর উপজেলা পরিষদ হলরুমে জেলা প্রশাসক তমিজুল ইসলাম খানের সভাপতিত্বে এ বৈঠক হয়। আরও বক্তব্য দেন ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) প্রকল্প পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবুল কাশেম, পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদার, খুলনা বিভাগীয় নির্বাচন কর্মকর্তা ইউনুচ আলী, যশোর জেলার সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির, কেশবপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এম এম আরাফাত হোসেন প্রমুখ।

কে এম নূরুল হুদা বলেন, দেশে শতভাগ সুষ্ঠু ও প্রতিযোগিতামূলক পৌর নির্বাচন হচ্ছে। নির্বাচনে ৬০ শতাংশের ওপর মানুষ ভোট দিচ্ছে। মিডিয়াতেই বলা হয় কেন্দ্রে মানুষের উপচেপড়া ভিড়, নারীরা দীর্ঘলাইনে দাঁড়িয়ে ভোট দিচ্ছেন। পরিবেশ-পরিস্থিতি ভালো থাকলেই নারীরা কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দেন।

সিইসি বলেন, কেশবপুর পৌরসভা নির্বাচনে কোনো ঝুঁকি নেই। নির্বাচনের পরিবেশ অত্যন্ত ভালো। এ পর্যন্ত কোনো ঝগড়া-মারামারি হয়নি। নির্বাচন অবাধ, নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হবে।

কে এম নূরুল হুদা বলেন, আদালতের আদেশ অনুযায়ী ২৮ ফেব্রুয়ারি যশোর পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠানে কোনো বাধা না থাকলেও এই সময়ের মধ্যে নির্বাচন সম্ভব হবে না। তবে দ্রুত এ নির্বাচন করতে চায় কমিশন। এপ্রিল মাসের প্রথম সপ্তাহের মধ্যে পূর্বঘোষিত তফসিল অনুযায়ীই নির্বাচন শেষ করার ইচ্ছা পোষণ করেন তিনি।

বিকেলে যশোর সার্কিট হাউসে যশোর ও ঝিনাইদহ পৌর নির্বাচন সংশ্নিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক সভা করেন সিইসি।