'বন্দুকযুদ্ধে' শীর্ষ রোহিঙ্গা ডাকাতসহ নিহত ৩

প্রকাশ: ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১

টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি

টেকনাফের রোহিঙ্গা ক্যাম্পসংলগ্ন পাহাড়ে র‌্যাবের সঙ্গে 'বন্দুকযুদ্ধে' শীর্ষ ডাকাত জকির আহমদ ওরফে জকিরসহ দলটির তিন সদস্য নিহত হয়েছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় টেকনাফের নয়াপাড়া মৌচনি রোহিঙ্গা ক্যাম্পের পশ্চিমে পাহাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলো- টেকনাফের নয়াপাড়ার সি ব্লকের বাসিন্দা জকির, তার সহযোগী একই ক্যাম্পের মো. হামিদ ও শালবন রোহিঙ্গা ক্যাম্পের মো. জহির।

এসব তথ্য নিশ্চিত করে কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ অধিনায়ক উইং কমান্ডার আজিম আহমেদ জানান, গোপন সংবাদে জানা যায়, টেকনাফের নয়াপাড়া মৌচনি রোহিঙ্গা ক্যাম্পের পশ্চিম পাহাড়ে শীর্ষ ডাকাত দল জকির বাহিনী অস্ত্রশস্ত্রসহ সেখানে অবস্থান করছে। সে সূত্র ধরেই মঙ্গলবার বিকেলে র‌্যাবের একটি দল দ্রুত সেখানে অভিযান চালায়। এ সময় র‌্যাব মাইকিং করে তাদের বারবার আত্মসমর্পণ করার নির্দেশ দেয়। তবে তারা র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। র‌্যাবও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। তিনি আরও জানান, ঘণ্টাখানেক গোলাগুলির পর ডাকাতরা পিছু হটে পাহাড়ি অঞ্চলে ঢুকে পড়ে। পরে ঘটনাস্থলে তল্লাশি করে তিনজনের গুলিবিদ্ধ লাশ পাওয়া যায়। তার মধ্যে ডাকাত দলের প্রধানও ছিল। এ ঘটনায় র‌্যাবের এক সদস্য গুলিবিদ্ধসহ দু'জন আহত হয়েছেন।

র‌্যাব বলছে, ঘটনাস্থল থেকে ২টি পিস্তল, ২টি বন্দুক, ৫টি ওয়ান শুটারগান ও ২৫ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। শীর্ষ ডাকাত জকিরসহ তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে ধর্ষণ, ডাকাতি, হত্যাসহ একাধিক মামলা রয়েছে। এর মধ্যে জকিরের বিরুদ্ধে ২০টির বেশি মামলা রয়েছে। তারা ছিল ক্যাম্পের ত্রাস।