দুর্গন্ধ খুঁজতে গিয়ে পানির ট্যাংকে মিলল শিশুর লাশ

প্রকাশ: ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১

সমকাল প্রতিবেদক

রাজধানীর শ্যামপুরের করিমুল্লাবাগের তিন তলা একটি বাড়ির বিভিন্ন ফ্ল্যাটে পানির লাইনে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছিল। সে দুর্গন্ধের উৎস খুঁজতে গিয়ে ছাদে রাখা পানির ট্যাংকে পাওয়া গেল গলিত এক শিশুর মরদেহ। খবর পেয়ে গতকাল মঙ্গলবার সকালে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে।

ছেলে শিশুটির পরিচয় পায়নি পুলিশ। আশপাশের বাসিন্দারাও তাকে চিনতে পারেনি। আনুমানিক ৩ বছর বয়সী শিশুটির মরদেহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

ওই বাড়ির মালিক নাসির উদ্দিন একটি ইনস্যুরেন্স কোম্পানির কর্মকর্তা। তিনি পুলিশকে জানিয়েছেন, সোমবার থেকে তারা লাইনের পানিতে দুর্গন্ধ পাচ্ছিলেন। বিভিন্ন বাসা থেকে একই তথ্য দেওয়া হয়। প্রথমে তিনি ব্লিচিং পাউডারের গন্ধ ভেবেছিলেন। অবশ্য আশপাশের বাসাবাড়ির পানিতে গন্ধ নেই বলে জানতে পারেন তিনি। মঙ্গলবার (গতকাল) গন্ধের তীব্রতা বাড়তে থাকায় এর উৎস খুঁজতে ছাদে উঠে ট্যাংক দেখতে যান। তখন ভেতরে শিশুর লাশ দেখতে পান।

শ্যামপুর থানার উপপরিদর্শক মাহবুবুর রহমান বলেন, প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে, শিশুটি

হত্যাকাণ্ডের শিকার। তবে প্রায় পুরো দেহে পচন ধরায় হত্যার ধরন বোঝা যায়নি। বাড়ির মূল ফটক খোলা থাকে। শিশুটি ছাদে নিজেই গিয়েছিল, নাকি কেউ তাকে সেখানে নিয়ে হত্যা করে লাশ গুম করেছে, তার তদন্ত চলছে।

ঢাকা মহানগর পুলিশের শ্যামপুর জোনের অতিরিক্ত উপকমিশনার নাজমুন নাহার বলেন,

শ্যামপুরসহ আশপাশ এলাকা থেকে কোনো শিশু নিখোঁজের খবর তাদের কাছে নেই। ধারণা করা হচ্ছে, অন্য কোনো এলাকা থেকে শিশুটিকে এনে হত্যা করে লাশ গুমের চেষ্টা করা হয়েছে। তবে তার পরিচয় শনাক্তের চেষ্টা চলছে।