ময়মনসিংহে পাঁচ বছরের ফুটফুটে একটি মেয়ে শিশুর লাশ পাওয়া গেছে। তার বাবা-মায়ের বিবাহ বিচ্ছেদ হয়েছে কয়েক বছর আগে। পুলিশ ও স্বজনের ধারণা, শিশুটির মা-ই তাকে হত্যা করেছে।

কম্বল দিয়ে প্যাঁচানো অবস্থায় লাশটি পাওয়া যায় মুক্তাগাছা শহরের পাড়াটঙ্গী এলাকার একটি মসজিদের কোনায়। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে পুলিশ শিশুটির লাশ উদ্ধার করে। উদ্ধারের ১৬ ঘণ্টা পর শুক্রবার দুপুরে শিশুটির পরিচয় পাওয়া যায়। তার নাম সূচী আক্তার। সে জামালপুর সদরের চিতলিয়া গ্রামের সাইফুল ইসলামের মেয়ে।

পুলিশ ও পরিবারের সদস্যরা জানান, ছয় বছর আগে জামালপুর সদরের মুসকিনি গ্রামের চম্পা আক্তারের বিয়ে হয় সাইফুলের সঙ্গে। তাদের সন্তান সূচীর বয়স যখন চার মাস, তখন চম্পা স্বামীকে তালাক দিয়ে অন্যত্র চলে যায়। সূচী বড় হয় দাদির কাছে। এদিকে সূচীর বাবা দ্বিতীয় বিয়ে করেন। এ ঘরে রয়েছে দুটি ছেলে সন্তান।

দেড় মাস আগে সূচীকে বাড়ির সামনে থেকে নিয়ে ঢাকায় চলে যায় চম্পা। বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে চম্পা সূচীর সৎমাকে মোবাইল ফোনে জানায়, তার মেয়ে ঢাকার একটি হাসপাতালে মারা গেছে।

মুক্তাগাছা থানার ওসি দুলাল আকন্দ বলেন, ধারণা করা হচ্ছে সূচীর মা তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করে মসজিদের কোনায় ফেলে পালিয়ে যায়। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য করুন