ঢাকায় নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী বলেছেন, বাংলাদেশের গণমাধ্যমের ভূমিকা সব সময়ই প্রশংসনীয়। বিশেষ করে এখানকার গণমাধ্যম 'ফ্রি, ভাইব্রেন্ট ও কালারফুল'। তিনি বলেন, বাংলাদেশ ও ভারত শুধু নিবিড় বন্ধুত্বের প্রতিবেশী রাষ্ট্রই নয়; বরং একে অপরের গুরুত্বপূর্ণ উন্নয়ন সহযোগী। একাত্তর সালে দুই দেশের মধ্যে যে গভীর বন্ধনের সৃষ্টি হয়েছিল, তা আজও অটুট আছে; ভবিষ্যতে আরও এগিয়ে যাবে।

সোমবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে মিডিয়া সেন্টারের উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন হাইকমিশনার। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন। সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস খান।

বিক্রম দোরাইস্বামী বলেন, চলতি বছর বাংলাদেশের জন্য অত্যন্ত গর্বের ও আনন্দের একটি বছর। এ বছরে বাংলাদেশ স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন করছে। এ উদযাপনে ভারতও বাংলাদেশের অংশীদার।

তিনি বলেন, জাতীয় প্রেস ক্লাব এমন একটি স্থান, যা বাংলাদেশের চেতনার মূর্ত প্রতীক। এই প্রেস ক্লাব সাংবাদিকদের পেশাগত কাজে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। শুধু সাংবাদিকই নন; এই ক্লাবের সঙ্গে কবি, লেখক, চলচ্চিত্র নির্মাতারাও সম্পৃক্ত রয়েছেন। ভারতীয় হাইকমিশন প্রেস ক্লাবের মিডিয়া সেন্টারের উন্নয়নকাজের সহযোগী হতে পেরে আনন্দিত। ভবিষ্যতে সুযোগ পেলে আরও ভূমিকা রাখার প্রত্যাশার কথাও জানান তিনি।

জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন বলেন, বাংলাদেশ ও ভারতের সম্পর্ক ঐতিহাসিক। দুই দেশের সম্পর্ক এখন সবচেয়ে ভালো পর্যায়ে রয়েছে। সরকারের সঙ্গে সরকারের ভালো সম্পর্কের পাশাপাশি দুই দেশের জনগণের মধ্যেও সম্পর্ক আরও বাড়াতে হবে। দুই দেশের গণমাধ্যমের মধ্যেও সহযোগিতা বাড়াতে হবে। মিডিয়া সেন্টারে সহযোগিতার জন্য তিনি ভারতীয় হাইকমিশনের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

মন্তব্য করুন