তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, কারাগারে কোনো মৃত্যু অবশ্যই অনাকাঙ্ক্ষিত। মুশতাক আহমেদের মৃত্যুতে আমি নিজেও ব্যথিত। কিন্তু এটি নিয়ে যেভাবে মাঠ গরম করার অপচেষ্টা হচ্ছে, সেটি অনভিপ্রেত। গতকাল বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত সদ্য প্রয়াত অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান স্মরণে সভায় তিনি এ কথা বলেন।

হাছান মাহমুদ বলেন, দেশে যে পক্ষগুলো মুশতাকের মৃত্যু নিয়ে মাঠ গরম করার অপচেষ্টা করছে, তাদের পেছন থেকে যারা বাতাস দিচ্ছে, আর ঘাপটি মেরে বসে আছে, সেগুলো হচ্ছে জঙ্গিগোষ্ঠী, স্বাধীনতার পরাজিত শক্তি। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবি প্রসঙ্গে তথ্যমন্ত্রী বলেন, একজন এই আইনে কারাগারে ছিলেন, তার মৃত্যু কীভাবে হয়েছে সেটি তদন্তাধীন। নানা আইনেই তো নানাজন গ্রেপ্তার হয়, কারাগারে থাকে, তাহলে অন্য আইনে গ্রেপ্তার কারও যদি কারাগারে মৃত্যু হয়, তাহলে সেই আইনগুলোও কি বাতিল করতে হবে।

বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের উপদেষ্টা চিত্ত রঞ্জন দাসের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক অরুণ সরকার রানার পরিচালনায় স্মরণসভায় আরও বক্তব্য দেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান, কণ্ঠশিল্পী রফিকুল আলম, আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট বলরাম পোদ্দার, এটিএম শামসুজ্জামানের কন্যা কোয়েল আহমেদ প্রমুখ।

মন্তব্য করুন