গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি বলেছেন, শীতলক্ষ্যায় লঞ্চডুবির ঘটনার ভিডিও ফুটেজ দেখে মনে হয়েছে, এটি ঠান্ডা মাথায় সংঘটিত একটি হত্যাকাণ্ড। এর দায় কোনোভাবেই কার্গো-সংশ্নিষ্টরা এড়াতে পারেন না। এটি একটি অবকাঠামোগত হত্যাকাণ্ড। এর সঙ্গে যারাই জড়িত, তাদের প্রত্যেককে আইনের আওতায় আনতে হবে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাব ভবনে নারায়ণগঞ্জ টিভি চ্যানেলের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। শীতলক্ষ্যায় লঞ্চ দুর্ঘটনায় নিহত প্রত্যেকের পরিবারকে ১০ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবিতে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে গণসংহতি আন্দোলন। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন নারী নেত্রী পপি রানী সরকার। উপস্থিত ছিলেন গণসংহতি আন্দোলনের জেলার সমন্বয়ক তরিকুল সুজন।

জোনায়েদ সাকি বলেন, মানুষের জীবনের কোনো মূল্য হয় না। আমরা এ ধরনের ঘটনায় ৫০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে থাকি। তবে নিহত ৩৪ জনের প্রত্যেকের পরিবার যাতে কমপক্ষে ১০ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ পান, সেই দাবি জানাচ্ছি।

মন্তব্য করুন