ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে প্রজন্ম লীগ নেতা আবু সুফিয়ান মৃধাকে হাতুড়ি ও রড দিয়ে পিটিয়ে হাত-পা ভেঙে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলার মোহনপুর গ্রামে এ

ঘটনা ঘটে।

আবু সুফিয়ান ফরিদপুর জেলা আওয়ামী প্রজন্ম লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও মোহনপুর গ্রামের চুন্নু মৃধার ছেলে। তাকে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ট্রমা সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে।

এর আগে আহত সুফিয়ানকে বোয়ালমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে তিনি জানান, বুধবার সন্ধ্যায় সাতৈর ইউনিয়নের জয়নগর থেকে নিজ বাড়ি মোহনপুর ফেরার সময় কয়ড়া গ্রামের মোহনের বাড়ির কাছে পৌঁছলে কয়ড়া গ্রামের আবুল, মানু, মুশা এবং ডোবরা গ্রামের আমীর সরদার, মুরাদ মুন্সী তাকে লাঠি দিয়ে আঘাত করে মোটরসাইকেল থেকে ফেলে দেয়। এর পর পাশের রবিনের বাড়ির পেছনের বাগানে নিয়ে হাতুড়ি ও রড দিয়ে পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে তাকে হাসপাতালে নেন।

সুফিয়ানের চাচাতো ভাই মো. রিপন হোসেন মিয়া বলেন, সুফিয়ান সব সময় মাদক-জুয়ার বিরুদ্ধে সোচ্চার। এলাকার কিছু দুস্কৃতকারীকে জুয়ার আসর থেকে দুই দিন ধাওয়া এবং তাদের বিরুদ্ধে মানববন্ধন করেছে। সে জন্য সুফিয়ানকে মেরে ফেলার উদ্দেশ্যেই জুয়াড়িরা সংঘবদ্ধভাবে হামলা চালায়।

এ ব্যাপারে জয়নগর ফাঁড়ি পুলিশের উপপরিদর্শক জাকির হোসেন বলেন, খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে গিয়েছিলেন। তার আগেই সুফিয়ানকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তিনি শুনেছেন, জুয়া খেলা নিয়ে প্রতিপক্ষের সঙ্গে সুফিয়ানের গোলযোগ ছিল।

মন্তব্য করুন