প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বলেছেন, বাংলাদেশ কোনো খুনির দেশ নয়, এটা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর সোনার দেশ। বঙ্গবন্ধুর এই সোনার দেশ অবশ্যই আমরা রক্ষা করব। বিচার বিভাগ এ বিষয়ে তার সম্পূর্ণ দায়িত্ব পালন করবে। সুপ্রিম কোর্টের দুই বিচারপতির লেখা দুটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে গতকাল শনিবার ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে আপিল বিভাগের বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের লেখা 'বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ একজন যুদ্ধ শিশুর গল্প ও অন্যান্য' এবং হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিমের লেখা 'বঙ্গবন্ধু সংবিধান আইন আদালত ও অন্যান্য' শীর্ষক বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়। বই দুটি প্রকাশ করেছে মাওলা ব্রাদার্স।

প্রধান বিচারপতি বলেন, 'আমাদের একটা বিশাল অর্জন, বঙ্গবন্ধুর হত্যার বিচার হয়েছে, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করতে পেরেছি। এই কথা তো (স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে) যারা বিদেশি মেহমান এসেছিলেন, তাদের বলতে পারিনি। আমাদের নতুন প্রজন্মের কাছেও এসব বিষয় তুলে ধরতে পারিনি।' তার মতে, এসব বিষয়ে আরও বেশি নজর দিতে হবে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা জাগ্রত করতে হলে বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচারের কথা আনতেই হবে।

প্রধান বিচারপতি বলেন, সংবিধান অনুযায়ী আদালতের নির্দেশনা পালনে দেশের নির্বাহী বিভাগসহ সবার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। কিন্তু তারপরেও সর্বোচ্চ আদালতের রায় কার্যকর না হওয়া দুঃখজনক।

প্রধান বিচারপতি বলেন, সরকারি সম্পত্তি তো আসলে সরকারি না। সম্পত্তির মালিক জনগণ। সরকার হলো সংরক্ষণকারী। জনগণের পক্ষে সরকার সম্পত্তি সংরক্ষণ করে। এই সরকারি সম্পত্তি সংরক্ষণ করা সকলের দায়িত্ব।

ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন আপিল বিভাগের বিচারপতি ইমান আলী, সাবেক সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর এমপি, ইতিহাসবিদ ও অধ্যাপক মুনতাসীর মামুন, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি মফিদুল হক, অ্যাটর্নি জেনারেল এএম আমিন উদ্দিন, একাত্তর টিভির প্রধান নির্বাহী মোজাম্মেল বাবু, প্রথম আলোর যুগ্ম সম্পাদক আনিসুল হক ও মাওলা ব্রাদার্সের স্বত্বাধিকারী আহমেদ মাহমুদুল হক। অনুষ্ঠানে নিজেদের বই নিয়ে কথা বলেন দুই বিচারপতি। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী রোকসানা পারভীন কবিতা।

মন্তব্য করুন