বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য এম ইলিয়াস আলীর নিখোঁজের বিষয়ে নতুন তথ্য দিলেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস। গতকাল শনিবার এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় ইলিয়াস আলীর 'গুমে'র পেছনে দলের ভেতরে থাকা কয়েকজন নেতাকে দুষলেন তিনি। এ ঘটনার সঙ্গে আওয়ামী লীগ বা সরকার জড়িত নয় বলেও মন্তব্য করেন। ইলিয়াস আলীর সন্ধান দাবিতে ঢাকাস্থ সিলেট বিভাগ জাতীয়তাবাদী সংহতি সম্মিলনী আয়োজিত এ আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মির্জা আব্বাস কারও নাম উল্লেখ না করে বলেন, দলের ভেতরে লুকিয়ে থাকা এই ব্যক্তিদের অনেকেই চেনেন। ইলিয়াস গুম হওয়ার আগের রাতে দলীয় অফিসে কোনো এক ব্যক্তির সঙ্গে তার বাগ্‌বিতণ্ডা হয় মারাত্মক রকমের। ইলিয়াস খুব গালিগালাজ করেছিলেন তাকে। সেই যে পেছন থেকে দংশন করা সাপগুলো এই দলে এখনও রয়ে গেছে। এ সময় তিনি মির্জা ফখরুলকে উদ্দেশ করে বলেন, যদি এদের দল থেকে বিতাড়িত না করেন, তাহলে কোনো পরিস্থিতিতেই দল সামনে এগোতে পারবে না।

২০১২ সালের ১৭ এপ্রিল রাজধানীর বনানী থেকে গাড়িচালক আনসার আলীসহ নিখোঁজ হন ইলিয়াস আলী। বিএনপি অভিযোগ করে আসছে, তাকে সরকারই 'গুম' করেছে।

ইলিয়াস আলীর 'গুমে'র খবর ওই দিন রাত দেড়টা থেকে পৌনে দুইটায় পেয়েছিলেন জানিয়ে মির্জা আব্বাস বলেন, গুমের সংবাদ পাওয়ার পর পরিচিত যারা ছিলেন, তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা জানান, ইলিয়াস আলীকে চট্টগ্রাম নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সবচেয়ে ইন্টারেস্টিং যে পুলিশ কর্তকর্তাদের সামনে তাকে নেওয়া হলো, সেই পুলিশ কর্মকর্তাদের আজ পর্যন্ত পাওয়া যায়নি। এই খবর আপনারা কেউ জানেন না। পুলিশের গাড়িতে যে ক'জন কর্মকর্তা ছিলেন, তাদের আজও পাওয়া যায়নি। যেমন ইলিয়াস আলীর চালককেও পাওয়া যায়নি। তাহলে এই কাজটা করল কে?

আলোচনা সভায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অভিযোগ করে বলেন, বাংলাদেশ দুই দানবের কবলে পড়েছে। একটা হচ্ছে ক্ষমতাসীন সরকার, যারা অন্য দেশের স্বার্থ হাসিল করছে। আরেকটা করোনাভাইরাস। সেটা শুধু আমাদের নয়, গোটা বিশ্বকে আক্রান্ত করছে। তিনি বলেন, আজ বাংলাদেশ সত্যিকার অর্থে একটা ভয়াবহ সময় অতিক্রম করছে। এ অবস্থায় আজ সবচেয়ে প্রয়োজন ছিল ইলিয়াস আলীর মতো সাহসী নেতাকে।

যুবদলের সাবেক সহসভাপতি কাইয়ুম চৌধুরীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যাপক এজেডএম জাহিদ হোসেন, শামসুজ্জামান দুদু, বিএনপি নেতা খায়রুল কবির খোকন, ফজলুল হক মিলন, জহিরউদ্দিন স্বপন, কামরুজ্জামান রতন, আজিজুল বারী হেলাল, সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু, আবদুল কাদির ভূঁঁইয়া জুয়েল এবং নিখোঁজ ইলিয়াস আলীর স্ত্রী তাহসিনা রুশদীর লুনা বক্তব্য দেন।

মন্তব্য করুন