সিলেটে বেপরোয়া ট্রাক কেড়ে নিয়েছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবি) এক শিক্ষার্থীর প্রাণ। নিহত সাব্বির আহমদ (১৮) শাবির রসায়ন বিভাগের প্রথম বর্ষ প্রথম সেমিস্টারের ছাত্র ছিলেন। গত বুধবার রাতে নগরীর সুবিদবাজার পয়েন্টে ট্রাকের চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী সাব্বির নিহত হন। গুরুতর আহত হন বুরহান সাদিক নামে শাবির আরেক শিক্ষার্থী। তিনি আইপিই বিভাগের ছাত্র।

সাব্বিরের বাড়ি নড়াইলে। তবে তার পরিবার ঢাকার সাভারে থাকে। পড়াশোনার জন্য সাব্বির সিলেট নগরীর আখালিয়া এলাকায় একটি বাসায় থাকতেন। গতকাল বৃহস্পতিবার তার লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বুধবার রাত ৯টার দিকে সাব্বির ও বুরহান মোটরসাইকেলে সুবিদবাজার পয়েন্টে এলে পেছন থেকে আসা দ্রুতগতির একটি ট্রাক তাদের মোটরসাইকেলে ধাক্কা দেয়। এতে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সাব্বির নিচে পড়ে যান। মাথায় গুরুতর আঘাতের ফলে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তার।

কোতোয়ালি থানার ওসি এসএম আবু ফরহাদ জানান, এ ঘটনার পর ট্রাকচালক আব্দুল কাদিরকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। নিহতের চাচা জিল্লুর রহমান বাদী হয়ে গতকাল সকালে মামলা করেন। এ মামলায় ট্রাকচালক কাদিরকে আদালতে হাজির করলে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন বিচারক।

এদিকে সাব্বিরের নিহতের খবরে শাবির শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী তাৎক্ষণিকভাবে সুবিদবাজার এলাকায় সড়ক অবরোধ করেন। রাস্তায় আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করেন তারা। এ সময় সড়কের দু'পাশে দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হয়। এক ঘণ্টা পর পুলিশের হস্তক্ষেপে তারা অবরোধ প্রত্যাহার করেন। কর্মসূচি থেকে সাব্বির হত্যার বিচার নিশ্চিত করা, সিলেট নগরের অভ্যন্তরীণ রুটে ট্রাক চলাচল বন্ধ রাখাসহ ছয় দফা দাবি উত্থাপন করা হয়।

মন্তব্য করুন