খুলনা করোনা হাসপাতালে প্রায় ছয় মাসেও অক্সিজেন প্লান্ট স্থাপন হয়নি। এ প্রকল্পের জন্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে চাওয়া ৯৭ লাখ টাকা বরাদ্দ না মেলায় থমকে আছে কার্যক্রম। এতে ক্ষুব্ধ হাসপাতালের চিকিৎসকরা।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, ছয় মাস আগে হাসপাতালটিতে লিকুইড অক্সিজেন প্লান্ট স্থাপনের জন্য একটি ট্যাঙ্কসহ আনুষঙ্গিক মালপত্র দেওয়া হয়। সেটি স্থাপনের জন্য প্রায় ৯৭ লাখ টাকা প্রয়োজন। স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের খুলনা অফিস থেকে গত ৪ মার্চ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে অর্থ বরাদ্দ চাওয়া হলেও এখনও তা মেলেনি। এ নিয়ে কয়েক দফা স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মধ্যে চিঠি চালাচালিও হয়েছে। কিন্তু অর্থ বরাদ্দ দেওয়ার বিষয়টি চূড়ান্ত হয়নি।

খুলনায় করোনা চিকিৎসা ব্যবস্থাপনা কমিটির সমন্বয়কারী ও খুলনা মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ ডা. মেহেদী নেওয়াজ বলেন, অক্সিজেন প্লান্ট স্থাপনের জন্য যে চিঠি চালাচালি হচ্ছে, তা নিরসন হওয়া প্রয়োজন। দ্রুত অর্থ বরাদ্দ দিয়ে কাজটি শুরু করা জরুরি। কারণ করোনা রোগীদের চিকিৎসায় পর্যাপ্ত অক্সিজেন সরবরাহ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

খুলনা করোনা হাসপাতালের মুখপাত্র ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার বলেন, আগে স্থাপন করা একটি অক্সিজেন প্লান্ট দিয়ে করোনা রোগীদের অক্সিজেন সরবরাহ করা হচ্ছে। পাশাপাশি নতুন প্লান্টটি স্থাপনের জন্য চেষ্টা চলছে। স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর খুলনার নির্বাহী প্রকৌশলী আশুতোষ কর্মকার জানান, তাদের প্রধান কার্যালয় থেকে অর্থ বরাদ্দ ও নির্দেশনা পেলে তারা অক্সিজেন প্লান্ট স্থাপন কাজ শুরু করবেন।

মন্তব্য করুন