স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, যারা টিকা নিয়েছেন তাদের অনেকেই মনে করেন তাদের করোনা হবে না। কিন্তু দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার পরও অনেকেই করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তাই স্বাস্থ্যবিধি অবশ্যই মানতে হবে। অন্যথায় আমাদের অবস্থা ভারতের চেয়েও খারাপ হবে। ঈদুল ফিতর উপলক্ষে গতকাল শুক্রবার মানিকগঞ্জ শহরে করোনায় দুস্থদের মাঝে খাদ্য সহায়তা বিতরণকালে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ভারতে লাশের পাশে আরেক লাশ সৎকার হচ্ছে। একটু অক্সিজেন পাওয়ার জন্য সেখানে করোনা আক্রান্ত মানুষ ছোটাছুটি করছে। অক্সিজেনের অভাবে মানুষ মারা যাচ্ছে। আমাদের দেশে ওষুধ ও অক্সিজেনের অভাব হয়নি। আমাদের দেশে প্রতিদিন গড়ে ৭০ থেকে ৮০ টন অক্সিজেন লাগে। দেশে অক্সিজেন উৎপাদন হচ্ছে ২০০ টন। আগামী মাসে আরও ৪০ টন অক্সিজেন উৎপাদন হবে। আমাদের অক্সিজেনের অভাব হবে না। তবে স্বাস্থ্যবিধি না মানলে আমাদের অবস্থা খারাপ হয়ে যাবে।

জেলা প্রশাসক এসএম ফেরদৌসের সভাপতিত্বে খাদ্য সহায়তা বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন পুলিশ সুপার রিফাত রহমান শামীম, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম মহীউদ্দীন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম, সহসভাপতি অ্যাডভোটে আব্দুল মজিদ, মানিকগঞ্জ পৌরসভার মেয়র রমজান আলী, মানিকগঞ্জ সদর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আফসার উদ্দিন সরকার প্রমুখ।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, করোনা রোগীদের চিকিৎসার জন্য দেশে দুই হাজার বেড ছিল। এখন শুধু ঢাকা শহরে রয়েছে আট হাজার বেড। সারাদেশে রয়েছে ১৩ হাজার বেড। গত এক বছরে সারাদেশে ১৩০টি হাসপাতালে সেন্ট্রাল অক্সিজেনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। দেশে একটি মাত্র ল্যাবে করোনা পরীক্ষার ব্যবস্থা ছিল। বর্তমানে সারাদেশে ৪০০ ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা করা হচ্ছে।

মন্তব্য করুন