প্রেমের পথে বাধা হয়ে দাঁড়ানো এক কিশোরকে দেখে নিতে ইউটিউব দেখে পিস্তল তৈরি করে তৌফিকুর রহমান সীমান্ত (২৪)। এ পিস্তল দিয়েই সে এহিয়া হোসেন মির্জা ওরফে নূর মোহাম্মদ (১৬) নামের ওই কিশোরকে গুলি করে। শনিবার রাতে মানিকগঞ্জ শহরের এলজিইডি অফিসের পাশে এ ঘটনা ঘটে। আহত এহিয়াকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের পর গতকাল রোববার দুপুরে সীমান্তকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ভাস্কর সাহা জানান, সদর উপজেলার জয়রা এলাকায় মাসুদুর রহমানের ছেলে সীমান্ত ছবি আঁকা, ইনটেরিয়র ডিজাইনসহ বহু সৃষ্টিশীল কাজ করে। সে নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া একটি মেয়েকে পছন্দ করে। কিন্তু ওই মেয়ের সঙ্গে এহিয়ার সম্পর্ক হয়। এতে এহিয়াকে শিক্ষা দেওয়ার পরিকল্পনা করে সীমান্ত। পরে ইউটিউব ঘেঁটে সবচেয়ে কম খরচে কম পরিশ্রমে কীভাবে পিস্তল বানানো যায় তা রপ্ত করে বানিয়ে ফেলে বারুদ আর সিসার বুলেটের পিস্তল।

মন্তব্য করুন