আবারও লকডাউনের মেয়াদ বাড়ায় দুর্ভোগ বেড়েছে রাজধানীর দরিদ্র ও স্বল্প আয়ের শ্রমজীবী মানুষের। দিনমজুর, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী, খেটে খাওয়া বিভিন্ন পেশার মানুষ কাজে ফিরতে পারছেন না। গতকাল সোমবার রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে এসব মানুষের মধ্যে হতাশা লক্ষ্য করা গেছে। তারা জানিয়েছেন, শ্রম ছাড়া বেঁচে থাকার কোনো উপায় নেই তাদের। তারা সব শর্ত, বিধিনিষেধ মেনে কাজ করার সুযোগ চান।

ছিন্নমূল হকার সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম জুয়েল সমকালকে বলেন, 'লকডাউন আমাদের জীবনকে শেষ করে দিয়েছে। আমরা এখন উঠে দাঁড়াতে পরছি না। সামান্য পুঁজি নিয়ে আমরা ফুটপাতে ব্যবসা করি। এর আগে লকডাউন প্রত্যাহার করায় যার যা আছে তা নিয়ে আবার ব্যবসা শুরু করেছিলাম। আবার লকডাউন বাড়ানোর ঘোষণা দেওয়ায় হকাররা দিশেহারা হয়ে পড়েছেন।'

রাজধানীর মোহাম্মদপুরের ভ্যানচালক কাশেম শেখ সমকালকে বলেন, দোকান, মার্কেট, ব্যবসা-বাণিজ্য চালু থাকলে কাজ পাওয়া যায়। এখন সব বন্ধ, কাজ নাই। হঠাৎ হঠাৎ কিছু কাজ পাওয়া যায়। ভ্যানের সংখ্যা বেশি, কাজ কম। তাই যারা কাজ নিয়ে আসেন তারা মজুরি কম দেয়। এভাবে চলতে থাকলে বেশি দিন বেঁচে থাকা সম্ভব নয়। এক সময় আমাদের না খেয়ে মরতে হবে।

মন্তব্য করুন