বগুড়া শহরের গুরুত্বপূর্ণ এলাকা হিসেবে পরিচিত ধরমপুর গড়েরহাটে সেতুর অভাবে সেখানে সাড়ে তিন কোটি টাকায় তৈরি করা রাস্তা কোনো কাজে আসছে না। এ কারণে এলাকাবাসীকে অতিরিক্ত এক কিলোমিটার রাস্তা ঘুরে চলাচল করতে হচ্ছে। এ অবস্থায় চরম দুর্ভোগে আছেন স্থানীয়রা।

সূত্র জানায়, বগুড়া পৌরসভার আওতাধীন ধরমপুর গড়েরহাট এলাকায় খালের ওপর বাঁশের সাঁকো তৈরি করে ওই রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন শত শত মানুষ যাতায়াত করে আসছিলেন। সেখানে সাঁকোর দু'পাশে কাঁচা রাস্তা ছিল। এলাকাবাসীর দাবির পরিপ্রেক্ষিতে সাঁকোর দু'পাশে তিন কিলোমিটার রাস্তা পাকা করা হয়। কিন্তু পৌরসভার অর্থ সংকটের কারণে আর সেতু নির্মাণ করা যায়নি। পরে স্থানীয় এমপির মাধ্যমে বিষয়টি একনেকে তোলা হলে প্রকল্পটি পাস হয়। কিন্তু সেতু নির্মাণ হয়নি। এ কারণে প্রায় চার বছর ধরে রাস্তাটি ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে আছে।

স্থানীয় সাবেক ওয়ার্ড কাউন্সিলর মেজবাউল হামিদ বলেন, ধরমপুর গড়েরহাট এলাকায় একটি সেতু নির্মাণ করা অত্যন্ত জরুরি। তার প্রচেষ্টায় সেখানে সেতু নির্মাণের বিষয়টি একনেকে পাস হয়ে আছে। কিন্তু এ বিষয়ে আর অগ্রগতি হচ্ছে না।

বগুড়া সদর উপজেলা প্রকৌশলী মাহবুবুল হক বলেন, সেখানে একটি ২০ মিটার সেতু নির্মাণের জন্য দু'মাস আগে অর্থ বরাদ্দ চাওয়া হয়েছে এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলীর দপ্তরের কাছে। অর্থ বরাদ্দ পেলেই সেতুটি নির্মাণের কার্যক্রম শুরু করা যাবে। এটি নির্মাণে প্রায় দেড় কোটি টাকা ব্যয় হতে পারে।

মন্তব্য করুন