মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার উত্তর কাজী কসবা গ্রামে মো. নয়ন মিজি (৩৫) নামে এক ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে হত্যা করেছে ছাত্রলীগ নামধারী এক দল দুর্বৃত্ত। বুধবার সন্ধ্যায় সিপাহীপাড়াস্থ প্রতিভা স্কুল সংলগ্ন কাঠবাগানে নয়নকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করা হয়। ওই রাতেই তাকে ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে তিনি মারা যান।

নিহত নয়ন মিজি উত্তর কাজী কসবা গ্রামের মৃত আব্দুল বাতেন মিজির ছেলে। তার মৃত্যুর খবর পেয়ে নাহিদ ও তৌকির নামে দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ ছাড়া হত্যায় জড়িত অপর সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তারে পুলিশ অভিযান শুরু করেছে বলে জানা গেছে।

স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নয়ন এলাকায় মুরগির ফার্মের ব্যবসা করতেন। পাশাপাশি কবুতর পালতেন। কিছুদিন আগে তার ফার্ম থেকে সদরের রামপাল ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রান্ত শেখ ও তার সহযোগী শোভন, কাঞ্চন, রনি গং কবুতর ও মুরগি চুরি করে। এ নিয়ে নয়নের সঙ্গে দ্বন্দ্ব দেখা দিলে সালিশ বৈঠক হলেও মীমাংসা হয়নি। এর মধ্যে বুধবার সন্ধ্যায় প্রান্ত ও তার সহযোগীরা নয়নকে তুলে নিয়ে কাঠ ও লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে এ হত্যার ঘটনা ঘটায়।

নিহত নয়নের ছোট মেয়ে নিঝুম জানায়, তাদের চোখের সামনে নয়নকে কাঠ ও লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে হাত-পা ভেঙে ও মাথা ফাটিয়ে রক্তাক্ত করা হছে। বাবার হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার ও ফাঁসির দাবি জানায় নিঝুম।

মুন্সীগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মিনহাজ উল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় নাহিদ ও তৌকির নামে দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অপর আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। তিনি জানান, বুধবার পিটিয়ে রক্তাক্ত করার ঘটনায় রাতেই থানায় মামলা করা হয়। যেহেতু ভিকটিম মারা গেছে, তাই ওই মামলাটি এখন হত্যা মামলায় রূপান্তর করা হবে।

মন্তব্য করুন