মাদ্রাসার একটি গোপন কক্ষে সুড়ঙ্গ। পাশেই সোনালী ব্যাংক বরাবর সেই সুড়ঙ্গের মুখ। খেলতে গিয়ে হারিয়ে যাওয়া ফুটবল খুঁজতে গিয়ে স্থানীয় ছেলেরা সুড়ঙ্গটির সন্ধান পায়। আর এতেই নস্যাৎ হয় ব্যাংক ডাকাতির পরিকল্পনা। রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার জায়গীরহাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।

গতকাল মঙ্গলবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সোনালী ব্যাংক জায়গীরহাট শাখার ব্যবস্থাপক সামিউল হাসান। তিনি বলেন, একতলা ভবনে অবস্থিত ব্যাংকটির পাশে রয়েছে ফখরুল উলুম সিনিয়র মাদ্রাসা। সোমবার রাতে এলাকার লোকজন বিষয়টি জানানোর পর ব্যাংকে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানায়, করোনার কারণে মাদ্রাসাটি দেড় বছর ধরে বন্ধ। স্থানীয় কিশোররা ওই মাদ্রাসার মাঠে ফুটবল খেলছিল। এক পর্যায়ে ফুটবলটি সেখানে চলে যায়। সেটি আনতে গিয়ে এক কিশোর সুড়ঙ্গটি দেখতে পায়। পরে সে তার বাবাকে বিষয়টি জানায়। ওই কিশোরের বাবা সন্ধ্যায় বাজারে এসে লোকজনকে ঘটনাটি খুলে বলেন। এরপর স্থানীয়রা সেটি দেখতে যায়। খবর পেয়ে মিঠাপুকুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

জায়গীর ফখরুল উলুম সিনিয়র মাদ্রাসার সভাপতি এনামুল হক বলেন, মাদ্রাসা দেড় বছর ধরে বন্ধ। মাদ্রাসার পূর্বপাশে একটি কক্ষ আছে, সেখানে কাঠসহ কিছু জিনিসপত্র আছে। ওই রুমেই এই সুড়ঙ্গ খোঁড়া হয়েছে।

মিঠাপুকুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জাকির হোসেন বলেন, দুর্বৃত্তরা সুড়ঙ্গ খুঁড়ে ব্যাংক পর্যন্ত যেতে পারলে হয়তো একটা বড় ধরনের ডাকাতির ঘটনা ঘটত।

বিষয় : সুড়ঙ্গ

মন্তব্য করুন