চট্টগ্রামে এক দিনে করোনায় মৃত্যু এবং আক্রান্ত শনাক্তের রেকর্ড হয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় জেলায় সর্বোচ্চ ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। নতুন শনাক্ত হয়েছে এক হাজার ৩১০ জন। এর আগে সর্বোচ্চ মৃত্যু ছিল ১৫, শনাক্ত ছিল ১০০৩ জন। এ ছাড়া সিলেট বিভাগেও সর্বোচ্চ শনাক্ত হয়েছে। খুলনা বিভাগে সবচেয়ে বেশি রোগী মারা গেছেন কুষ্টিয়া জেলায় ১৮ জন। অন্যান্য জেলায়ও পরিস্থিতির তেমন কোনো উন্নতি নেই। বিশেষ করে গ্রামাঞ্চলে করোনার উপসর্গে মৃত্যু বাড়ছে। সমকালের ব্যুরো, অফিস ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

চট্টগ্রাম :এবার করোনা শনাক্তের হার ও মৃত্যু অতীতের সব রেকর্ড ভেঙেছে। চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় তিন হাজার ৩৮৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। শনাক্তের হার ৩৮ দশমিক ৬৫ শতাংশ। মারা যাওয়া ১৮ জনের মধ্যে মহানগরের সাতজন, বাকিরা বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা। আর শনাক্তদের মধ্যে নগরীর ৮৩৩ জন এবং ৪৭৭ জন বিভিন্ন উপজেলার।

সিলেট :বিভাগে এক দিনে শনাক্তের সংখ্যা ৭০০ ছাড়াল। গত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড ৭০৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৩৯ দশমিক ৫৩ শতাংশ। ১৮ জুলাই শনাক্ত ছিল ৬৮১ জন। বিভাগে ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে সাতজনের। সিলেট জেলায় শনাক্ত ৩৫৪ জন, সুনামগঞ্জে ১২০, হবিগঞ্জে ৬৬ ও মৌলভীবাজারে ১০৬ জন।

রাজশাহী :২৪ ঘণ্টায় রাজশাহী মেডিকেলের করোনা ওয়ার্ডে ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের ১০ জন করোনা পজিটিভ ছিলেন, বাকিদের উপসর্গ ছিল। আগের দিন দুটি পিসিআর ল্যাবে জেলার ৪১৩টি নমুনা পরীক্ষায় শনাক্ত ৯৩, শনাক্তের হার ২২ দশমিক ৫২ শতাংশ।

বরিশাল :বিভাগে করোনায় এবং উপসর্গ নিয়ে এক দিনে ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। নতুন শনাক্ত ৮২২ জন। শনাক্তের হার ৩৭ দশমিক ১৬ শতাংশ। বরিশাল জেলায় শনাক্ত ২৯৩ জন, শনাক্তের হার ৩৯ দশমিক ৫৯ শতাংশ। এ ছাড়া ভোলায় শনাক্ত ১২০, পিরোজপুরে ১৩৫, ঝালকাঠিতে ৬৯, বরগুনায় ৮৮ ও পটুয়াখালীতে ১১৭ জন।

খুলনা :গত ২৪ ঘণ্টায় খুলনা বিভাগে ৪৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এই সময়ে শনাক্ত এক হাজার ৪৩৫ জন। বিভাগের মধ্যে সবচেয়ে বেশি রোগী মারা গেছেন কুষ্টিয়ায় ১৮ জন। সবচেয়ে বেশি শনাক্ত খুলনায় ৪৬৯ জন। এ ছাড়া কুষ্টিয়ায় শনাক্ত ২৫৩, যশোরে ২২৬ ও বাগেরহাটে ১০১ জন।

ময়মনসিংহ :গত ২৪ ঘণ্টায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের পাঁচজন করোনা পজিটিভ ছিলেন, বাকিদের উপসর্গ ছিল। এই সময়ে বিভাগে শনাক্ত ৫৬৭ জন, শনাক্তের হার ২৬ দশমিক ৩৩ শতাংশ।

রংপুর :বিভাগে করোনায় আরও ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে রংপুরের চারজন, পঞ্চগড়ের দুই, লালমনিরহাটের এক, কুড়িগ্রামের এক, ঠাকুরগাঁওয়ের দুই, দিনাজপুরের এক ও গাইবান্ধার একজন। এই সময়ে শনাক্ত ৮৩৭ জন, শনাক্তের হার ২৬ দশমিক ৯২ শতাংশ।

সাতক্ষীরা :জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় আটজনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের একজন করোনা পজিটিভ ছিলেন, বাকিদের উপসর্গ ছিল। এই সময়ে শনাক্ত ৭৯, শনাক্তের হার ৩৫ দশমিক ৫৯ শতাংশ।

এ ছাড়া গাইবান্ধায় গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ৬২ জন। এদিকে, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে পাবনার কৃতী ফুটবলার ও কোচ আলতাফ হোসেন (৪০) সোমবার রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। তার বাড়ি সদর উপজেলার চকগোবিন্দা এলাকায়।

মন্তব্য করুন