খুলনা বিভাগে ৩৬ দিন পর সর্বনিম্ন মৃত্যুর কথা জানিয়েছেন বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. জসিম উদ্দিন হাওলাদার। করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগের বিভিন্ন হাসপাতালে ১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর আগে গত ২৬ জুন সর্বনিম্ন ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছিল। সিলেটে রেকর্ড শনাক্ত ও মৃত্যুর পরদিন গতকাল শনিবার শনাক্তের সংখ্যা ও হার দুটিই কমেছে। বগুড়ায় সংক্রমণ কমেছে পাঁচ শতাংশ। এদিকে ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমণ ও ভাইরাসটির উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন রংপুরে ১৬ জন, ময়মনসিংহে ১৬ জন, বরিশালে ১৪ জন ও রাজশাহী মেডিকেলে ১৩ জন। সমকালের ব্যুরো ও আঞ্চলিক অফিস থেকে পাঠানো খবর-

খুলনা:বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগের মধ্যে সর্বোচ্চ মৃত্যু হয়েছে কুষ্টিয়ায় পাঁচজনের। এছাড়া খুলনায় চারজন, ঝিনাইদহ ও যশোরে তিনজন করে, চুয়াডাঙ্গায় দু'জন, বাগেরহাট ও মেহেরপুরে একজন করে মৃত্যু হয়েছে। এদিকে সমকালের সাতক্ষীরা প্রতিনিধি জানিয়েছেন, সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনার উপসর্গ নিয়ে ছয়জন মারা গেছেন।

সিলেট:২৪ ঘণ্টায় ৯৫৩টি নমুনা পরীক্ষায় ৩৪০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগে শনাক্তের হার ৩৫ দশমিক ৬৮ শতাংশ। এই সময়ে মারা গেছেন ৯ জন। তাদের আটজনই সিলেট জেলার বাসিন্দা। দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সিলেট বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডা. হিমাংশু লাল রায় এ তথ্য জানিয়েছেন।

বগুড়া:জেলার করোনা বিশেষায়িত দুটি সরকারি হাসপাতালে রোগী ভর্তি এবং মৃত্যুর সংখ্যা কমতে শুরু করেছে। চিকিৎসকরা বলছেন, ঈদুল আজহার দু'দিন পর থেকে শুরু হওয়া লকডাউনের পাশাপাশি চলমান টিকা প্রদান কর্মসূচিতে ব্যাপক মানুষের অংশগ্রহণের

কারণে করোনার দাপট হয়তো কিছুটা কমেছে। তবে আক্রান্তের হার ৫ শতাংশের নিচে না নামা পর্যন্ত আত্মতুষ্টির সুযোগ নেই।

মোহাম্মদ আলী হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. এটিএম নুরুজ্জামান সঞ্চয় বলেছেন, কয়েক দিন হলো রোগীর চাপ একটু কমেছে। মনে হচ্ছে আক্রান্তের সংখ্যাও কিছুটা হলে কমেছে। তবে রোগী কমলেও আইসিইউ বেড ফাঁকা নেই।

শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপপরিচালক ডা. আব্দুল ওয়াদুদ বলেন, জেলায় করোনা সংক্রমণের হার এখনও অনেক বেশি। তাই টিকা গ্রহণের পাশাপাশি সবাইকে অবশ্যই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।

রংপুর:বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ১৬ জনের মধ্যে রংপুরের পাঁচ জন, ঠাকুরগাঁওয়ের তিনজন, পঞ্চগড়, নীলফামারী ও দিনাজপুরে দু'জন করে এবং কুড়িগ্রাম ও গাইবান্ধার একজন করে রয়েছেন। বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. মোহারুল ইসলাম জানান, বিভাগে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৪৪ হাজার ১৭৩ জন। সুস্থ হয়েছেন ৩৩ হাজার ৮৪১ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ৮৮৪ জনের

নমুনা পরীক্ষায় ২৩৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ২৬ দশমিক ৩৬ ভাগ।

ময়মনসিংহ:ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে গত ২৪ ঘণ্টায় আটজন করোনা শনাক্ত হয়ে এবং আটজন উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন। তাদের মধ্যে ময়মনসিংহের ১০ জন, নেত্রকোনার দু'জন এবং টাঙ্গাইল, জামালপুর, শেরপুর ও কিশোরগঞ্জের একজন করে রয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় এক হাজার ১৪৭ জনের নমুনা পরীক্ষায় শনাক্ত হয়েছেন ২৮৪ জন। শনাক্তের হার ২৪ দশমিক ৭৬ শতাংশ।

বরিশাল:বিভাগে করোনায় আক্রান্ত ও উপসর্গে ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৪ জন মারা গেছেন। একই সময়ে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৩২২ জন। শনাক্তের হার ৪৬ দশমিক ৮৭। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিভাগীয় পরিচালক ডা. বাসুদেব কুমার দাস জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে বিভাগে মোট মারা গেছেন আটজন। তার মধ্যে ঝালকাঠিতে তিনজন, বরিশাল ও ভোলায় দু'জন করে এবং পটুয়াখালীতে একজন। এদিকে শেবাচিম হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স রেহানা পারভীন (৪০) করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার রাত ৮টায় মারা গেছেন।

রাজশাহী:রাজশাহী মেডিকেলে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ১৩ জনের মধ্যে পাবনার পাঁচজন, রাজশাহী ও নওগাঁর তিনজন করে এবং নাটোর ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের একজন করে রয়েছেন। তাদের মধ্যে পাঁচজন করোনা পজিটিভ ও আটজনের উপসর্গ ছিল।

মন্তব্য করুন