সিলেট বিভাগে এক দিনে করোনায় রেকর্ড ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর আগে বিভাগে সর্বোচ্চ ১৭ জন করে মৃত্যু হয়েছিল গত ২৮ ও ৩০ জুলাই। গত ২৪ ঘণ্টায় সিলেট জেলায়ও সর্বোচ্চ মৃত্যু হয়েছে। এ ছাড়া বরিশাল বিভাগের মধ্যে শনাক্তের হারে শীর্ষে ছিল ভোলা। গত ২৪ ঘণ্টায় এ জেলায় শনাক্ত ১৮২, শনাক্তের হার ছিল ৫১ দশমিক ৫২ শতাংশ। তবে সর্বাধিক শনাক্ত ছিল বরিশালে ৩৩৭ জন। এদিকে, চট্টগ্রামে করোনায় এক দিনে আরও ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃত্যু হাজার ছাড়াল। সংক্রমণ ও মৃত্যু বাড়ছে অন্যান্য জেলায়ও। ব্যুরো, অফিস ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে বিস্তারিত :

সিলেট :গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগে ৭১৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৩৭ দশমিক ৪৩ শতাংশ। শনাক্তদের মধ্যে সিলেট জেলায় ৪১৬ জন, সুনামগঞ্জে ৯৭, হবিগঞ্জে ৩৮ এবং মৌলভীবাজারে ১২৬ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সিলেটে সর্বোচ্চ ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে করোনায়। এ দিন সুনামগঞ্জে তিন ও হবিগঞ্জে একজনের মৃত্যু হয়েছে।

বরিশাল :বিভাগের ছয় জেলায় করোনা ও উপসর্গে ২৪ ঘণ্টায় ১৩ জন মারা গেছেন। এ সময়ে নতুন শনাক্ত ৭৭৩ জন। শনাক্তের হার ৩৪ দশমিক ৬৮ ভাগ। বিভাগের অন্য জেলার মধ্যে পটুয়াখালীতে শনাক্ত ৯৭, পিরোজপুরে ৪৭, বরগুনায় ৬৪ ও ঝালকাঠিতে ১৮২ জন।

চট্টগ্রাম :গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে নতুন শনাক্ত এক হাজার ২৮৫ জন। শনাক্তের হার ৩৫ শতাংশ। শনাক্তদের মধ্যে ৮৪৪ জন চট্টগ্রাম মহানগরীর এবং ৪৪১ জন বিভিন্ন উপজেলার। মারা যাওয়া ১৬ জনের মধ্যে ১০ জন বিভিন্ন উপজেলার এবং ছয়জন মহানগরের বাসিন্দা।

ময়মনসিংহ :গত ২৪ ঘণ্টায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে আরও ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের ১০ জন করোনা পজিটিভ ছিলেন, বাকিদের উপসর্গ ছিল। এ সময়ে বিভাগে শনাক্ত ৫৩২ জন, শনাক্তের হার ২৫ দশমিক ৪৩ শতাংশ।

খুলনা :বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ সময়ে শনাক্ত ৭৪৫ জন। বিভাগের মধ্যে সবচেয়ে বেশি শনাক্ত যশোরে ১৫০ জন। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ শনাক্ত কুষ্টিয়ায় ১৪৩ জন। এ ছাড়া খুলনায় ১০৩ জন শনাক্ত হয়েছে। অন্যান্য জেলায় শনাক্ত ১০০-এর নিচে।

রাজশাহী :গত ২৪ ঘণ্টায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের চারজন করোনা পজিটিভ, আটজনের উপসর্গ ছিল এবং দু'জন করোনা নেগেটিভ হওয়ার পর মারা গেছেন। আগের দিন রাজশাহীর দুটি পিসিআর ল্যাবে জেলার ৩৩৭টি নমুনা পরীক্ষায় শনাক্ত ৮৪, শনাক্তের হার ২৪ দশমিক ৯৩ শতাংশ।

রংপুর :বিভাগে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আরও ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ সময়ে বিভাগে শনাক্ত ৫৫৭ জন। শনাক্তের হার ৩২ দশমিক ৭ শতাংশ।

এ ছাড়া গাইবান্ধায় গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ৪৪ জন, মৃত্যু হয়েছে একজনের; সাতক্ষীরায় করোনার উপসর্গ নিয়ে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে, নতুন শনাক্ত ৪৪; টিকা নেওয়ার পর করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন রাজবাড়ী সদর হাসপাতালের চিকিৎসক শামীম আহসান। এদিকে, গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় করোনা পরীক্ষার পর রিপোর্ট পজেটিভ শোনার পর আতঙ্কে ইউসুফ আলী শেখ নামে এক মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে।

মন্তব্য করুন