গাইবান্ধা-৪ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) মনোয়ার হোসেন চৌধুরীর ধানমন্ডির লেকপাড়ের বাড়ির কিছু অবৈধ বর্ধিত অংশ ভেঙে দিয়েছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)। গতকাল এ অভিযান চালানো হয়। তবে ওই সাংসদ বলেছেন,

১৯৫৮ সালে জমিটি তার শাশুড়ির নামে গণপূর্ত অধিদপ্তর বরাদ্দ দেয়। তারপর থেকে দীর্ঘ ৬০ বছর এই সীমানাপ্রাচীর রয়েছে।

তিনি দাবি করেন, ২০ বছর আগে সিটি করপোরেশন লেকের ধারে নির্মাণ কাজ করার সময়ও সীমানাপ্রাচীরটি অক্ষত ছিল। ডিএসসিসি কোনো ধরনের নোটিশ না দিয়ে অবৈধভাবে সীমানাপ্রাচীর ভেঙে ফেলেছে। এ বিষয়ে আইনি লড়াই চালাবেন বলে সাংবাদিকদের জানান তিনি।

এ প্রসঙ্গে ডিএসসিসির মুখপাত্র আবু নাসের সমকালকে বলেন, ধানমন্ডি লেকের পরিবেশগত উন্নয়ন ও জনসাধারণের প্রাত্যহিক চলাফেরার ওয়াকওয়ে নতুনভাবে তৈরির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। মেয়র এ জন্য তিনবার লেকটি পরিদর্শন করেছেন। এরই মধ্যে পুঙ্খানপুঙ্খভাবে মাপজোক করা হয়েছে। এ সময় কিছু স্থানে লেকের মধ্যে বর্ধিত অংশ দেখতে পাওয়া যায়। এ রকম কিছু স্থাপনার অবৈধ অংশ উচ্ছেদ করা হয়েছে। এর মধ্যে একটি পুলিশ ফাঁড়ি ও ওয়াসার স্থাপনাও রয়েছে। পুলিশ ফাঁড়ি কর্তৃপক্ষ তিন দিন সময় নিয়েছে। ওয়াসার অবৈধ অংশ উচ্ছেদ করা হয়েছে। লেকের জায়গায় যেসব স্থাপনা রয়েছে, সেগুলো পর্যায়ক্রমে উচ্ছেদ করা হবে।

জানা যায়, গতকাল ডিএসসিসির নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মনিরুজ্জামানের নেতৃত্বে ধানমন্ডি লেকপাড়ে এ ধরনের বেশ কিছু স্থাপনার অংশবিশেষ উচ্ছেদ করা হয়।

মন্তব্য করুন