নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে গতকাল শনিবার শহীদ ডা. মিলন দিবস পালিত হয়েছে। এসব কর্মসূচিতে নব্বইয়ের স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে শহীদ ডা. শামসুল আলম খান মিলনের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানানো হয়।

দিবসটি উপলক্ষে বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও পেশাজীবী দল, সংগঠনসহ শহীদের পরিবারের পক্ষ থেকে বিস্তারিত কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়। সকালে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে দলের কেন্দ্রীয় নেতারা ঢাকা মেডিকেল কলেজ প্রাঙ্গণে ডা. মিলনের কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন, ফাতেহা পাঠ ও মোনাজাতে অংশ নেন। এ সময় দলের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আফজাল হোসেন, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক প্রকৌশলী আবদুস সবুর, উপ-দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বিএনপি শহীদ মিলনের কবরে ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি মোড়ে শহীদ ডা. মিলন স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ ও মোনাজাত করেছে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন দলটির কেন্দ্রীয় নেতা আমান উল্লাহ আমান, খায়রুল কবির খোকন, নাজিমুদ্দিন আলম, হাবিবুর রহমান হাবিব, জহিরউদ্দিন স্বপন, মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল প্রমুখ।

বাম গণতান্ত্রিক জোট শহীদ মিলনের কবর ও স্মৃতিস্তম্ভে শ্রদ্ধা জানিয়েছে। বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়ক বজলুর রশীদ ফিরোজ, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, বাসদ নেতা রাজেকুজ্জামান রতন, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি নেতা বহ্নিশিখা জামালী, আকবর খান, বাসদের (মার্কসবাদী) নেতা নাঈমা খালেদ মনিকা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। বিএমএর পক্ষ থেকে কালো ব্যাজ ধারণ, শহীদের কবর ও স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। এ ছাড়া শহীদ মিলনের পরিবার, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ), বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি, বাসদ, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, কৃষক লীগ, নব্বইয়ের ডাকসু ও সর্বদলীয় ছাত্রঐক্য এবং বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটসহ বিভিন্ন দল ও সংগঠন দিবসটি পালন করেছে।

মন্তব্য করুন