তারেক সাঈদ পঞ্চম দফায় রিমান্ডে

প্রকাশ: ১০ জুন ২০১৪      

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

নারায়ণগঞ্জের প্যানেল মেয়র নজরুল ইসলাম ও আইনজীবী চন্দন কুমার সরকারসহ ৭ জনকে অপহরণ ও হত্যার ঘটনায় দায়েরকৃত
মামলায় র‌্যাব-১১-এর সাবেক সিও লে. কর্নেল তারেক সাঈদ মোহাম্মাদকে পঞ্চম দফায় আরও ৫ দিনের পুলিশি রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। আইনজীবী চন্দন সরকার ও তার গাড়িচালক ইব্রাহিম হত্যা মামলায় ৫ দিনের রিমান্ড শেষে সোমবার বিকেলে তাকে আদালতে পাঠানো হয় এবং আরও ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হয়। শুনানি থেকে নারায়ণগঞ্জের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট চাঁদনী রূপম ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এ নিয়ে তারেক সাঈদকে পঞ্চম দফায়
রিমান্ডে নেওয়া হলো। ৭ খুনের মামলায় র‌্যাব-১১-তে তারেক সাঈদের অধীনে সাবেক দুই কর্মকর্তা মেজর আরিফ গত বুধবার ও লে. কমান্ডার এমএম রানা গত বৃহস্পতিবার আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।
বিকেল ৫টায় বরাবরের মতো কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে তারেক সাঈদকে আদালতে হাজির করা হয়। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি মামুনুর রশীদ মণ্ডল আসামির সঙ্গে প্রেরিত প্রতিবেদনে উল্লেখ করেন, তারেক সাঈদের কাছ থেকে ৭ হত্যার ঘটনায় অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে। সেগুলো যাচাই-বাছাই এবং আরও তথ্য সংগ্রহে আসামিকে আরও ৭ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ প্রয়োজন।
শুনানিতে অংশ নেন জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট সাখাওয়া হোসেন খান, আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট ফজলুর রহমান এবং অ্যাডভোকেট হাসান ফেরদৌস জুয়েল। শুনানিকালে অর্ধশতাধিক আইনজীবী উপস্থিত ছিলেন।
আদালত রিমান্ডের ব্যাপারে তারেক সাঈদের কিছু বলার আছে কি-না জানতে চাইলে তিনি আদালতের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, আমার নতুন কিছু বলার নেই। আগে যা বলেছি সেটিই আমার বক্তব্য।