আফগানিস্তানে আত্মঘাতী হামলা নিহত ৬৮

প্রকাশ: ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

সমকাল ডেস্ক

আফগানিস্তানের নানগারহার প্রদেশে আত্মঘাতী বোমা হামলায় অন্তত ৬৮ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও অন্তত ১৬৫ জন। গত মঙ্গলবার প্রদেশটির রাজধানী জালালাবাদ ও পাকিস্তনের প্রধান সীমান্ত ক্রসিংয়ের মধ্যবর্তী সড়কে এক প্রতিবাদ সমাবেশে হামলাটি চালানো হয়। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত কেউ হামলার দায় স্বীকার করেনি। খবর নিউইয়র্ক টাইমসের।

পাকিস্তানের নিকটবর্তী মোমান্দ দারা জেলার এক পুলিশ কমান্ডারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে সেখানে জড়ো হয়েছিল কয়েকশ' মানুষ। হামলাকারী তাদের লক্ষ্য করে আত্মঘাতী বিস্ম্ফোরণ ঘটায়। এতে বেঁচে যাওয়া লোকজন ছত্রভঙ্গ হয়ে গেলেও পরে আরও বেশি মানুষ সেখানে জড়ো হয়ে প্রতিবাদ অব্যাহত রাখে। তবে ওই পুলিশপ্রধানের বিরুদ্ধে অভিযোগের বিষয়ে কিছু জানা যায়নি।

সাম্প্রতিক মাসগুলোতে আফগানিস্তানে জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের (আইএস) হামলা বেড়ে গেছে। জঙ্গিরা এমনকি শিশুদের বিদ্যালয়গুলোতেও হামলা চালাচ্ছে। গত জুলাই মাসে জালালাবাদে তিনটি স্কুলে হামলা চালায় আইএস। এর মধ্যে দুটি ছেলেদের মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং অন্যটি মেয়েদের। স্কুল ভবনে লুকিয়ে রাখা বোমা ওই দিন সকাল ৭টার দিকে বিস্ম্ফোরিত হয়। এ সময় স্কুলে কোনো শিশু উপস্থিত ছিল না। কারণ আফগানিস্তানে স্কুলগুলো সাধারণত স্থানীয় সময় সকাল ৮টায় শুরু হয়। এরই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার নানগারহার প্রদেশে প্রতিবাদ সমাবেশে হামলা চালানো হয়। প্রাদেশিক গভর্নরের মুখপাত্র আতাউল্লাহ খাগানি বলেন, প্রদেশের প্রত্যন্ত এলাকায় প্রতিবাদ সমাবেশে হামলার ঘটনাটি ঘটেছে।

সাইয়েদ কাইয়ুম নামে একজন প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, হামলাকারী একটি সাদা গাড়ি নিয়ে প্রতিবাদ সমাবেশের দিকে যায়। যেতে যেতে 'সৃষ্টিকর্তা মহান' বলে চিৎকার দিয়েই বিস্ম্ফোরণ ঘটায়। অক্টোবরে আফগানিস্তানের সাধারণ নির্বাচন হওয়ার কথা। নির্বাচন প্রতিরোধের ডাক দিয়ে তালেবান জঙ্গিরা দেশটিতে দিন দিন হামলা তীব্র করছে। তবে গত মঙ্গলবারের হামলার সঙ্গে তারা জড়িত নয় বলে জানিয়েছে।