আদালতে যাননি

খালেদা জিয়ার জামিনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত আজ

প্রকাশ: ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

সমকাল প্রতিবেদক

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় কারাগারের মধ্যে স্থাপিত অস্থায়ী আদালতে হাজির হতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। গতকাল বুধবার মামলার যুক্তিতর্ক শুনানির জন্য দিন ধার্য ছিল। কিন্তু তাকে আদালতে হাজির করতে পারেনি কারা কর্তৃপক্ষ। তার পরিবর্তে আদালতে কাস্টডি প্রতিবেদন পাঠানো হয়। এতে বলা হয়, খালেদা জিয়া আদালতে হাজির হতে অনিচ্ছুক। এ বিষয়ে আজ বৃহস্পতিবার অধিকতর শুনানি এবং আইনি ব্যাখ্যা শেষে আদেশের জন্য দিন ধার্য করে বিচারক শুনানি মুলতবি করেছেন।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় পাঁচ বছরের সাজা পেয়ে গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে পুরান ঢাকার সাবেক কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি আছেন খালেদা জিয়া।

গতকাল দুপুর ১২টা ২০ মিনিটে আদালতের কার্যক্রম শুরু হয়। এ সময় খালেদা জিয়ার আইনজীবী সানাউলল্গাহ মিয়া বলেন, এ আদালত প্রকাশ্য নয়। সংবিধান পরিপন্থী। তিনি মামলার বিচার কার্যক্রম স্থগিত রেখে খালেদা জিয়ার জামিন বাড়ানোর আবেদন করেন।

এ অবস্থায় বিচারক খালেদা জিয়ার আইনজীবীদের কাছে জানতে চান, মামলার প্রধান আসামি আদালতে অনুপস্থিত থাকলে কীভাবে তিনি জামিনে থাকবেন? কাস্টডিতে লেখা, তিনি আদালতে আসতে অনিচ্ছুক। আবার জামিন চাওয়া হয়েছে। তা হলে বিচার কীভাবে চলবে? আইন কী বলে?

খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা এর কোনো উত্তর দেননি। বিচারক তাদের বৃহস্পতিবার এর আইনি ব্যাখ্যা দিতে বলেছেন। তবে জামিনের বিরোধিতা করে দুদকের আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল আদালতে বলেন, খালেদা জিয়া কারাগারে আছেন। তিনি আদালতে না এলে আইন অনুযায়ী এ মামলার বিচার কাজ চলবে।

খালেদা জিয়ার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া বলেন, খালেদা জিয়া অসুস্থ। রাষ্ট্রপক্ষের উচিত ছিল এখানে আদালত বসানোর আগে প্রধান বিচারপতির মতামত নেওয়া।

এ সময় দুদকের আইনজীবী কাজল বলেন, বারবার বলা হচ্ছে খালেদা জিয়া অসুস্থ। তিনি কিসের অসুস্থ। তিনি আদালতে এসে বক্তব্য দিয়েছেন। তা সবাই দেখেছেন।

অপর আসামি জিয়াউল ইসলাম মুন্নার আইনজীবী আমিনুল ইসলাম আদালতকে বলেন, এ আদালত গুহার মতো। এখানে যে কোনো সময় যে কারও 'সাফোকেশন' হতে পারে। এ আদালত সংবিধান পরিপন্থী। এক মাসের জন্য আদালতের কার্যক্রম মুলতবির আবেদন জানান তিনি।

এরপর দুদকের আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল আদালতকে বলেন, আইন মেনে এ আদালত গঠিত হয়েছে। খালেদা জিয়ার নিরাপত্তা ও সুবিধার কথা ভেবেই এখানে আদালত বসেছে। এ মামলার প্রধান আসামিকে যথাযথ সম্মান দিয়েই বিচার কার্যক্রম চালানো হচ্ছে। অথচ তিনি বলছেন, তিনি আদালতে আসবেন না। তিনি বিচার কাজে সহায়তা করছেন না। এ সময় তিনি আদালতে আসতে না চাইলে তাকে অনুপস্থিত রেখে বিচার কার্যক্রম চালানোর জন্য আদালতের কাছে আবেদন করেন দুদকের এই আইনজীবী। এ সময় উভয়পক্ষের মধ্যে বেশ কিছু সময় তর্ক-বিতর্ক চলে।

প্রধান আসামি খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে কীভাবে এ মামলার বিচার কার্যক্রম চলবে, তার অনুপস্থিতিতে যুক্তিতর্ক, শুনানি করা যাবে কিনা- এসব নিয়েও গতকাল আদালতে খালেদা জিয়ার এবং দুদকের আইনজীবীরা নিজ নিজ পক্ষে বক্তব্য রাখেন। আজ বৃহস্পতিবার এ বিষয়ে আরও অধিকতর শুনানি, আইনি ব্যাখ্যা এবং আদেশের জন্য দিন ধার্য করে দুপুর ১টা ২০ মিনিটে আদালত মুলতবি করেন বিচারক ড. মো. আখতারুজ্জামান।

পুরান ঢাকার নাজিমুদ্দিন রোডের সাবেক কেন্দ্রীয় কারাগারের ভেতর প্রশাসনিক ভবনের ৭ নম্বর কক্ষে অবস্থিত পঞ্চম বিশেষ জজ আদালতে মামলাটির বিচার কাজ চলছে। আদালতে খালেদা জিয়ার পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া। অপর দুই আসামি মনিরুল ইসলাম ও জিয়াউল ইসলাম মুন্নার পক্ষে বক্তব্য রাখেন আমিনুল ইসলাম। দুদকের পক্ষে শুনানি করেন মোশাররফ হোসেন কাজল। এ সময় মহানগর পিপি আব্দুল্লাহ আবু উপস্থিত ছিলেন।

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলার শুনানি উপলক্ষে গোটা আদালত এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়। গত ৪ সেপ্টেম্বর আইন মন্ত্রণালয় থেকে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার বিচার কাজ শেষ করতে ঢাকার পরিত্যক্ত কারাগারে অস্থায়ী আদালত স্থাপন করে গেজেট প্রকাশ করে। পরদিন সেখানে আদালত বসে।

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের নামে অবৈধভাবে তিন কোটি ১৫ লাখ ৪০ হাজার টাকা লেনদেনের অভিযোগে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ চারজনের বিরুদ্ধে ২০১০ সালের ৮ আগস্ট তেজগাঁও থানায় এ মামলা করে দুদক।

কুমিল্লার দুই মামলায় জামিন শুনানি পেছাল :কুমিল্লা থেকে নিজস্ব প্রতিবেদক জানান, কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে কাভার্ডভ্যান পোড়ানো এবং বাসে আগুন দিয়ে আটজন হত্যার পৃথক দুই মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন শুনানি পিছিয়েছে। গতকাল বুধবার বিকেলে কাভার্ডভ্যান পোড়ানো মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন শুনানি শেষে রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে অধিকতর শুনানির জন্য ১৩ সেপ্টেম্বর পরবর্তী দিন ধার্য করেন জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক কেএম সামছুল আলম।





প্রার্থিতা প্রত্যাহার করলেন যারা

প্রার্থিতা প্রত্যাহার করলেন যারা

ঢাকার বাইরে দেশের সাত বিভাগ- চট্টগ্রাম, সিলেট, রাজশাহী, বরিশাল, রংপুর, ...

বোনের পক্ষে ভোট চাইলেন সোহেল তাজ

বোনের পক্ষে ভোট চাইলেন সোহেল তাজ

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গাজীপুর-৪ (কাপাসিয়া) আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ...

ড. কামালের কর ফাঁকি খতিয়ে দেখা হচ্ছে: এনবিআর চেয়ারম্যান

ড. কামালের কর ফাঁকি খতিয়ে দেখা হচ্ছে: এনবিআর চেয়ারম্যান

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন ...

বিএনপি, ঐক্যফ্রন্ট ও ২০ দলের প্রার্থী যারা

বিএনপি, ঐক্যফ্রন্ট ও ২০ দলের প্রার্থী যারা

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে নির্বাচন কমিশনে (ইসি) চূড়ান্ত ...

আ'লীগ আবার ক্ষমতায় এলে বাড়িতে বাড়িতে কান্নার রোল উঠবে: রিজভী

আ'লীগ আবার ক্ষমতায় এলে বাড়িতে বাড়িতে কান্নার রোল উঠবে: রিজভী

আবারও আওয়ামী লীগ রাষ্ট্রক্ষমতায় এলে ভিন্নমত ও বিশ্বাস চিরদিনের জন্য ...

টেকনোক্র্যাট ৪ মন্ত্রীকে অব্যাহতি

টেকনোক্র্যাট ৪ মন্ত্রীকে অব্যাহতি

চার টেকনোক্র্যাট মন্ত্রীকে অব্যাহতি দেওয়া হলো। রাষ্ট্রপতির স্বাক্ষরের পর মন্ত্রিপরিষদ ...

বিএনপির দলীয় কোন্দল চরমে পৌঁছেছে: ওবায়দুল কাদের

বিএনপির দলীয় কোন্দল চরমে পৌঁছেছে: ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, দেশে এখন ...

রাজনীতিতে যুক্ত থাকা জীবনের দুর্ঘটনা ছিল: মনির খান

রাজনীতিতে যুক্ত থাকা জীবনের দুর্ঘটনা ছিল: মনির খান

জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়ন না পেয়ে অভিমান করে দল থেকে ...