প্রধানমন্ত্রী জার্মানি যাচ্ছেন বৃহস্পতিবার

প্রকাশ: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯      

কূটনৈতিক প্রতিবেদক

আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার জার্মানি সফরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রাথমিক সফরসূচি অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রী মিউনিখে ১৫-১৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত অনুষ্ঠেয় নিরাপত্তা সম্মেলনে অংশ নেবেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য পাওয়া গেছে। সফরকালে শেখ হাসিনা জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মের্কেলের সঙ্গেও দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করবেন।

এর আগে ২০১৭ সালেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমন্ত্রিত হয়ে 'মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে' অংশ নিয়েছিলেন। এই সম্মেলনে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্র ও সরকার  প্রধানরা আমন্ত্রিত হন। জাতিসংঘ মহাসচিবসহ আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংস্থার প্রধানরাও এতে যোগ দেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, জার্মানি থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংযুক্ত আরব আমিরাত যাবেন। আবুধাবিতে অনুষ্ঠেয় আন্তর্জাতিক প্রতিরক্ষা প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণের কথা রয়েছে তার। সফরকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেশটির ক্রাউন প্রিন্স শেখ মোহাম্মদ বিন জায়েদের বৈঠকেরও কথা রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ভারতের বিমানবাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ :বাসস জানায়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন সফররত ভারতের বিমানবাহিনী প্রধান মার্শাল বীরেন্দ্র সিংহ ধনোয়া। গতকাল সোমবার জাতীয় সংসদ ভবনে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে তিনি সাক্ষাৎ করেন। এ সময় প্রধানমন্ত্রী প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় বাংলাদেশ ও ভারতের বিমানবাহিনীর একযোগে কাজ করার প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন।

ভারতের বিমানবাহিনীর প্রধানকে প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'আমরা আশা করি দুই দেশের বিমানবাহিনীর মধ্যে সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে। দুই বাহিনী যেকোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলার ক্ষেত্রে একযোগে কাজ করতে পারে।' দুই দেশের মধ্যে বিদ্যমান বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কে সন্তোষ প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'আমাদের মধ্যে চমৎকার সম্পর্ক রয়েছে এবং আশা করি এ সম্পর্ক ভবিষ্যতে আরও জোরদার হবে।'

বীরেন্দ্র সিংহ ধনোয়া বাংলাদেশের স্বাধীনতার তিন মাসের মধ্যেই ভারতীয় প্রতিরক্ষা বাহিনীর দেশে ফিরে যাওয়ার কথা স্মরণ করে বলেন, 'এটি যুদ্ধ শেষে স্বল্পতম সময়ে কোনো বাহিনীর দেশে ফিরে যাওয়ার একমাত্র দৃষ্টান্ত।' তিনি বলেন, ভারতীয় বিমানবাহিনী বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর সক্ষমতা বাড়াতে সহযোগিতা দিতে প্রস্তুত রয়েছে। প্রশিক্ষণসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে দুই বাহিনীর মধ্যে সহযোগিতার ওপর জোর দেন তিনি। বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর অবকাঠামোর প্রশংসা করে ধনোয়া বলেন, এটি বিশ্বমানের।

প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব নজিবুর রহমান, সামরিক সচিব মেজর জেনারেল মিয়া মোহাম্মদ জয়নুল আবেদিন ও ভারপ্রাপ্ত ভারতীয় হাইকমিশনার ড. আদর্শ সোয়াইকা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।