সুবর্ণচরে এবার গণধর্ষণের শিকার স্কুলছাত্রী

দুইজন গ্রেফতার

প্রকাশ: ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯      

নোয়াখালী প্রতিনিধি

নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলায় চার সন্তানের জননী গণধর্ষণের শিকার হওয়ার রেশ কাটতে না কাটতেই এবার সেখানে এক শিশু শিক্ষার্থী (১৩) গণধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ঘটনায় শিক্ষার্থীর পরিবারের পক্ষ থেকে শুক্রবার রাতে চরজব্বর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। পুলিশ রাতে অভিযান চালিয়ে দুই ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে। তারা হচ্ছে উপজেলার পূর্ব চরভাটা ইউনিয়নের দক্ষিণ চরমজিদ গ্রামের তৈয়ব মিয়ার ছেলে ইস্রাফিল আজাদ স্বপন (২৩) ও একই এলাকার চাঁন মিয়ার ছেলে নিজাম (২২)।

ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার রাতে সুবর্ণচর উপজেলার পূর্ব চরভাটা  ইউনিয়ন এলাকায়।

চরজব্বর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. ইব্রাহিম খলিল জানান, গত বৃহস্পতিবার দুপুরে স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির ওই শিক্ষার্থী তার মাকে হাতিয়া যাওয়ার সময় বাড়ি থেকে এগিয়ে দেওয়ার জন্য স্থানীয় বুড়ার দোকানের কাছে যায়। পরে সে বাড়ি ফেরার পথে পূর্ব চরভাটা ইউনিয়নের দক্ষিণ চরমজিদ গ্রামের বাসিন্দা ও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশাচালক ইস্রাফিল আজাদ স্বপন ওই শিশু শিক্ষার্থীকে তার অটোরিকশায় উঠতে বলে। শিক্ষার্থী তার কাছে ভাড়ার টাকা নেই জানিয়ে হাঁটা শুরু করে। চালক স্বপন শিশু শিক্ষার্থীর ভাড়া লাগবে না জানিয়ে পুনরায় তার গাড়িতে উঠতে অনুরোধ জানিয়ে বলে, গাড়িভাড়া ছাড়াই তোমাকে বাড়ি পৌঁছে দেওয়া হবে। শিশুটি সরল মনে তার কথা বিশ্বাস করে অটোরিকশায় চড়ে বসে। এরপর শিশুটিকে নিয়ে লম্পট স্বপন বিভিন্ন জায়গায় ঘুরিয়ে রাত ৯টার দিকে ওই ইউনিয়নের দক্ষিণ চরমজিদ গ্রামের শাহজাহানের বাড়ির পাশে স্থানীয় বাঙ্গালী স্কুলের পাশে নির্জন স্থানে নিয়ে আসে। সেখানে নিজাম নামে আরও একজন অপেক্ষা করে। পরে স্বপন ও নিজাম দু'জন মিলে শিশুটিকে গণধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। শুক্রবার সকালে শিশুটি বাড়িতে এসে তার পরিবারকে ধর্ষণের বিষয়টি জানায়।