জয়পুরহাটে বাস উল্টে ৮ নারী-শিশু নিহত

চার জেলায় প্রাণ গেল আরও ৪ জনের

প্রকাশ: ১৩ এপ্রিল ২০১৯

সমকাল ডেস্ক

জয়পুরহাটে বাস উল্টে ৮ নারী-শিশু নিহত

শুক্রবার জয়পুরহাটের বানিয়াপাড়ায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে যাওয়া বাস ঘিরে এলাকাবাসীর ভিড় - সমকাল

জয়পুরহাট সদর উপজেলায় যাত্রীবাহী একটি বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে খাদে পড়ে আট নারী ও শিশু নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে অন্তত ৩০ জন। গতকাল শুক্রবার দুপুর দেড়টার দিকে বানিয়াপাড়া পুলিশ বক্সের কাছে জয়পুরহাট-বগুড়া সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। বাসটিতে থাকা আহত এক যাত্রী জানিয়েছেন, নিয়ন্ত্রণ হারানোর পর চালক কৌশলে স্টিয়ারিং ছেড়ে লাফিয়ে নিচে নেমে গেলে বাসটি উল্টে যায়। এদিকে বিভিন্ন স্থানে সড়ক দুর্ঘটনায় আরও চারজনের মৃত্যু হয়েছে। সমকালের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

জয়পুরহাটে নিহতদের মধ্যে তিনজন শিশু ও পাঁচজন নারী। তারা হলেন- জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার কড়িয়া গ্রামের হুমায়ন কবিরের ৭ মাস বয়সী মেয়ে হুমায়দা, উচনা গ্রামের আমির হোসেনের স্ত্রী জাহেরা বিবি (৫৫), রতনপুর গ্রামের সামছুদ্দিনের স্ত্রী জাকিয়া বেগম (৬৫), কালাই উপজেলার কাদিরপুর গ্রামের আবু বক্কর চৌধুরীর স্ত্রী হেনা বেগম (৩৮), গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলা সদরের বাসিন্দা ও জয়পুরহাট নার্সিং ইনস্টিটিউটের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী সারমিন আক্তার (১৭), রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার বড় আলমপুর গ্রামের দিলীপ মর্মের কন্যা রিপা (৩)। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত দু'জনের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, এমপি এন্টারপ্রাইজ (ঢাকা মেট্রো-জ-০৪-০৩৫০) নামের বাসটি বগুড়া থেকে যাত্রী নিয়ে জয়পুরহাটের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। দুপুর দেড়টার দিকে জয়পুরহাট সদর উপজেলার বানিয়াপাড়া-কোমরগ্রাম ব্রিজ এলাকায় পৌঁছলে চালক বাসটির নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে। তখন চালক স্টিয়ারিং ছেড়ে কৌশলে বাস থেকে লাফিয়ে নেমে গেলে এটি সড়কের পাশে খাদে পড়ে উল্টে যায়। ঘটনাস্থলেই মারা যায় আট নারী-শিশু। তারা সবাই বাসের সামনের আসনে বসে ছিল। আহত হন আরও অন্তত ৩০ যাত্রী। পুলিশ ও স্থানীয়রা বাসটির কাচ ভেঙে হতাহতদের উদ্ধার করে জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতালে নিয়ে যায়।

আহতরা হলেন- সিরাজগঞ্জ সদরের শিশু সোহাগী, ছালেহা বেগম, সাজেদা, আসলাম, বগুড়ার আলম হোসেন, আবুল হাছান, রাসেল, সিহাবুল ইসলাম, জয়পুরহাটের আলাউদ্দিন, আবু বক্কর, তহিদুল ইসলাম, অরুণ কুমার, সঞ্জয় বিশ্বাস, আরমান আলী, আসলাম আলী, নওগাঁর আবেদ আলী, সুফিয়া, ছালেহা, প্রমিলা, আবুল হোসেন, ফেরদৌস আলী, মুকুল হোসেন, মির্জা, মোর্শেদ আলী, শিশু মাহিশ, মাজেদা বেগম, মেহেদী হাসান, আয়েশা বেগম ও আরেক শিশু সোহাগী। তাদের মধ্যে ৬ জনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জয়পুরহাট হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বাসটির যাত্রী আবু বক্কর চৌধুরী বলেন, স্ত্রীকে নিয়ে বগুড়া থেকে বাসে উঠি। রাস্তার মাঝে মোকামতলা স্ট্যান্ডে এসে বাসের স্টাফ সবাই নেমে যায়। সেখানে দীর্ঘসময় বসে ছিল বাসটি। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে জয়পুরহাটে পৌঁছানোর জন্য চালক কালাই বাসস্ট্যান্ড পার হয়ে বেপরোয়া গতিতে বাসটি চালাতে থাকে। চালকের কারণেই মূলত এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। আবু বক্করের স্ত্রী হেনা বেগম ঘটনাস্থলেই মারা গেছেন, সে খবর এখনও জানেন না তিনি। স্বজনদের কাছে বারবার স্ত্রীর কথা জানতে চাচ্ছেন তিনি।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে জয়পুরহাটের পুলিশ সুপার রশিদুল হাসান বলেন, দুর্ঘটনার কারণ তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ছয়জনের লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

নেত্রকোনায় মোটরসাইকেল থেকে পড়ে আনসার-ভিডিপি কর্মকর্তার মৃত্যু :খালিয়াজুরী-মদন সড়কের কুলিহাটী গ্রাম সংলগ্ন কদমতলী বাজারের কাছে গতকাল বিকেলে চলন্ত মোটরসাইকেলের পেছন থেকে ছিটকে পড়ে আনসার-ভিডিপির খালিয়াজুরী উপজেলার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহেরা আক্তার (৫০) নিহত হয়েছেন। তিনি উপজেলা সদরের ভাঙ্গাহাটি গ্রামের আবুল কালাম আজাদের স্ত্রী। স্বামীর সঙ্গে মোটরসাইকেলে করে নেত্রকোনা সদরে যাওয়ার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

হবিগঞ্জে ট্রাক-সিএনজি সংঘর্ষে নিহত ১ : ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জের নুরপুর এলাকায় গতকাল দুপুরে ট্রাক-সিএনজি মুখোমুখি সংঘর্ষে আলফাজ মিয়া (৫৫) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। নিহত আলফাজ উপজেলার বিশাউড়া গ্রামের শুক্কুর মিয়ার ছেলে।

গাংনীতে ট্রাকচাপায় কৃষক নিহত : মেহেরপুরের গাংনীতে ট্রাকচাকায় পিষ্ট হয়ে সিদ্দিকুর রহমান (৬০) নামে এক কৃষক নিহত হয়েছেন। গতকাল সকাল ১১টার দিকে উপজেলার হাড়িয়াদহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত সিদ্দিকুর রহমান হাড়িয়াদহ গ্রামের আবুল শেখের ছেলে।

গোপালগঞ্জে বাসের ধাক্কায় প্রাণ গেল নছিমনচালকের :বাসের ধাক্কায় নছিমনচালক হামিদুল শেখ (২৫) নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন নছিমনের আরও চার যাত্রী। বৃহস্পতিবার দুপুরে গোপালগঞ্জ-টেকেরহাট সড়কের সদর উপজেলার চামটায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত হামিদুল মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার খালিয়া গ্রামের রশিদ শেখের ছেলে।