নিউজিল্যান্ডের পরীক্ষা নেবে বাংলাদেশ

প্রকাশ: ০৪ জুন ২০১৯      

ড্যানিয়েল ভেট্টরি

হয়তো সবাই বলবে, শুরুর এক ম্যাচ জিতেই এত আনন্দিত হওয়ার কিছু নেই। কিন্তু আমি বলব, শ্রীলংকার বিপক্ষে এই জয়ে গর্বিত হওয়ার অধিকার নিউজিল্যান্ডের আছে। অনেক দিক থেকেই এটা দারুণ এক শুরু, শুধু পারফরম্যান্সের দিক থেকে নয়, ম্যাচের ফলের ব্যবধানের দিক থেকেও। নেট রানরেটের গুরুত্ব নিয়ে আলোচনাটা আসবে আরও পরে, কিন্তু ভালো দলের জন্য এ ধরনের পারফরম্যান্স শুরুতেই কাজটা অনেক সহজ করে দেয়।

নিউজিল্যান্ড দল সবসময় পা মাটিতে রেখেই চলে। আর এর পেছনে কারণ হিসেবে বলা যায় কেন উইলিয়ামসনের দর্শন ও চিন্তাধারাকে, যা সে দলের ভেতর চালু করেছে। তবে সব ডিপার্টমেন্টেই ভালো করা এই ম্যাচ নিয়ে তাদের গর্বিত হওয়া উচিত, যেখানে বদলি খেলোয়াড়রাও ভালো করেছে। শ্রীলংকার সময়টা এমনিতেই ভালো যাচ্ছিল না। তার ওপর শুরুতেই ম্যাট হেনরি দারুণ পারফর্ম করেছে। প্রস্তুতি ম্যাচ তার ভালো যায়নি। সেখান থেকে ফিরে এসে এমন পারফর্ম করাটা সহজ নয়। কিন্তু সে জানে এমন কন্ডিশনে কীভাবে পারফর্ম করতে হয়। শুরুতেই তার তিন উইকেট দলের ও তার নিজের জন্য ছিল দারুণ। এটা নিউজিল্যান্ডকে তাদের স্বাভাবিক পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে সাহায্য করেছে।

ম্যাট অনেক দিন থেকেই দলে আছে, তাই প্রস্তুতি ম্যাচের ফল যে মূল আসরে কমই প্রভাব ফেলে, তা বোঝার মতো অভিজ্ঞ সে। আর ম্যাচের পিচ দেখার পর সে নিশ্চয়ই অনেক আত্মবিশ্বাসী ছিল। দল হিসেবে নিউজিল্যান্ডের কাছ থেকে এমন শক্তিশালী পারফরম্যান্সই আমরা প্রত্যাশা করি। এই বোলিং আক্রমণ তাদের কাজটা বুঝে গেছে আর সেটিই এখন ফল দিচ্ছে। হেনরি নিকোলস ফিট থাকলে এই ম্যাচে হয়তো কলিন মুনরো খেলত না। বদলি হিসেবে এসে যে ধরনের পারফরম্যান্স সে দেখিয়েছে, তার জন্য সেটা অনেক বড় পাওয়া। টি২০ ক্রিকেটে তার সামর্থ্য সম্পর্কে আমরা সবাই জানি, ওয়ানডে ম্যাচেও সেভাবে খেলতে দেখছি। শুরুর চার ব্যাটসম্যানের মধ্যে আত্মবিশ্বাসটা অনেক বেশি। তার কারণও আছে, তারা অনেক দিন থেকেই ভালো খেলছে এবং তারা ম্যাচ জেতানো ইনিংস খেলতে সক্ষম। দলে এমন খেলোয়াড় আছে, যারা নিউজিল্যান্ডকে এই টুর্নামেন্টে তাদের কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে নিয়ে যেতে পারে- যদি তারা পারফর্ম করে এবং ম্যাচ জেতায়।

পরের ম্যাচ ওভালে বাংলাদেশের সঙ্গে। এ ম্যাচে কন্ডিশন বড় ভূমিকা রাখবে। এটা খুবই ভালো উইকেট। দু'বছর আগে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে তাদের কাছে হেরেছিল নিউজিল্যান্ড, তাই এটা বড় পরীক্ষাই হতে যাচ্ছে। ওভালের উইকেটে রান করা অনেক সহজ হবে। তবে যেহেতু একটি জয় ঝুলিতে নিয়ে তারা ম্যাচ শুরু করতে যাচ্ছে, তাই সেটা নিউজিল্যান্ডের জন্য আত্মবিশ্বাসের কাজ করবে। বাংলাদেশও ভালো খেলে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়েছে। এদিক থেকে তারাও খুব উজ্জীবিত থাকবে। একটা দিক থেকে সুবিধাজনক অবস্থানেও রয়েছে তারা। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচটা খেলেছে ওভালে। তাই কন্ডিশন সম্পর্কে একটা ধারণা পেয়ে গেছে তারা। নিউজিল্যান্ডকে জিততে হলে অলআউট ক্রিকেট খেলতে হবে। কারণ বাংলাদেশের এই দলটাকে ভালোই মনে হচ্ছে।

লেখক :নিউজিল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক