রাজনৈতিক প্রতিক্রিয়া

মেনন মন্ত্রী হলে কি এ কথা বলতেন- ওবায়দুল কাদের

প্রকাশ: ২১ অক্টোবর ২০১৯      

সমকাল প্রতিবেদক

একাদশ নির্বাচনে জনগণ ভোট দিতে পারেনি বলে ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেননের দেওয়া বক্তব্যের সমালোচনা করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। টিপ্পনী কেটে তিনি বলেছেন, মেনন 'মন্ত্রী হলে কি এ কথা বলতেন?' গতকাল রোববার  সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এ কথা বলেন। এর আগের দিন আওয়ামী লীগের জোটসঙ্গী মেনন ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনের কড়া সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, '২০১৮ সালের নির্বাচনে আমিও নির্বাচিত হয়েছি। তার পরও আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি, ওই নির্বাচনে জনগণ ভোট দিতে পারেনি। এমনকি পরে উপজেলা এবং ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনেও ভোট দিতে পারেনি।' মেননের এ বক্তব্য ব্যাপকভাবে আলোচিত হয়।

ওবায়দুল কাদের বলেন, 'তিনি যদি বলেই থাকেন, আমার প্রশ্ন হচ্ছে এত দিন পরে কেন? এই সময়ে কেন? নির্বাচনটা তো অনেক আগে হয়ে গেছে। আরেক প্রশ্ন সবিনয়ে, মন্ত্রী হলে কি তিনি এ কথা বলতেন? আর কোনো কিছু বলতে চাই না।'

২০০৮ সালের নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে এমপি হন মেনন। ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এমপি হন। এরপর পাঁচ বছর মন্ত্রিত্ব করেন। একাদশ নির্বাচনে তিনি জয়ী হলে তাকে মন্ত্রিসভায় রাখা হয়নি। তার স্ত্রী হয়েছেন সংরক্ষিত আসনের এমপি। ক্ষমতাসীন দলের নেতারা বলছেন, মন্ত্রিত্ব না পেয়ে মেনন একাদশ নির্বাচন নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। অবশ্য গতকাল বিবৃতি দিয়ে এই বামনেতা বলেছেন, গণমাধ্যমে তার বক্তব্য ভুলভাবে এসেছে।

নরসিংদীর সরকারদলীয় এমপি তামান্না নুসরাত বুবলী উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন অনুষ্ঠিত স্নাতক পরীক্ষায় জালিয়াতি করে বহিস্কার হয়েছেন। তার হয়ে আটটি পরীক্ষা অন্য শিক্ষার্থী দিয়ে দেন। বুবলীর বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগ দলীয়ভাবে ব্যবস্থা নেবে কি-না জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে এ বিষয়ে তিনি কথা বলবেন।

খালেদা জিয়ার মুক্তি প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপি পরিস্কার বলে দিয়েছে যে আন্দোলন ছাড়া খালেদা জিয়ার মুক্তির পথ নেই। তারা আন্দোলন করুক, কোনো বাধা নেই।