পূবালী ব্যাংকের এটিএম বুথ থেকে টাকা চুরি

প্রকাশ: ২০ নভেম্বর ২০১৯     আপডেট: ২০ নভেম্বর ২০১৯

সমকাল প্রতিবেদক

ঢাকায় ডাচ্‌-বাংলা ব্যাংকের বুথ থেকে জালিয়াতি করে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার পর এবার ঢাকার বাইরে অন্য একটি ব্যাংকের দুটি বুথে হানা দিয়ে টাকা হাতিয়ে নিয়েছে দুর্বৃত্তরা। গত রবি ও সোমবার চট্টগ্রাম এবং কুমিল্লায় পূবালী ব্যাংকের দুটি বুথে এ ঘটনা ঘটে। দুর্বৃত্তরা বিশেষ কায়দায় বুথের অটোমেটেড ট্রেলার মেশিন (এটিএম) খুলে টাকা হাতিয়ে নেয়। পুলিশ ও ব্যাংক সূত্র প্রাথমিকভাবে জানিয়েছে, বুথগুলো থেকে এখন পর্যন্ত ৯ লাখ ৬০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেওয়ার তথ্য মিলেছে।

এ বিষয়ে পূবালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আবদুল হালিম চৌধুরী গতকাল মঙ্গলবার সমকালকে বলেন, তারা ঘটনাটি জানার সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নিয়েছেন। সংশ্নিষ্ট থানায় মামলা করা হয়েছে। দুর্বৃত্তদের ছবি পুলিশের কাছে দেওয়া হয়েছে।

এর আগে গত জুনে ঢাকার কয়েকটি এলাকায় ডাচ্‌-বাংলা ব্যাংকের বুথে হানা দেয় বিদেশি চক্র। ওই চক্রটি বিশেষ ডিভাইসের মাধ্যমে অন্তত ১৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়। ওই ঘটনায় দায়ের মামলায় ইউক্রেনের কয়েকজন নাগরিক গ্রেপ্তার হলেও রহস্য উদ্‌ঘাটন হয়নি। এরমধ্যেই চট্টগ্রামের শেখ মুজিব রোড ও কুমিল্লার কলেজ রোডে বুথ জালিয়াতির ঘটনা ঘটল। ওই দুটি ঘটনাও ঢাকার গোয়েন্দা পুলিশ ছায়াতদন্ত করছে।

পূবালী ব্যাংকের ঘটনায় দুর্বৃত্তরা গত রোববার কুমিল্লার কলেজ রোডে স্থাপিত ব্যাংকের বুথে এবং পরের দিন চট্টগ্রামের শেখ মুজিব রোডে স্থাপিত বুথে হানা দেয়। যে দৃশ্য সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পড়ে। চট্টগ্রামের বুথের ফুটেজে দেখা যায়, গোলাপি চেকশার্ট পরা এক ব্যক্তি বুথে ঢুকছেন। এরপর পকেট থেকে রিমোট জাতীয় ডিভাইস বের করেন। সেটি দিয়ে এটিএম মেশিনের সামনে নাড়াচাড়ার পর মনিটরের অংশটি খুলে ফেলেন। এরপর ভেতরে কিছু একটা স্থাপনের দৃশ্য দেখা যায়। পরে মনিটরের অংশটি স্থাপন করলেই স্বয়ংক্রিয়ভাবে টাকা বের হতে দেখা যায়। এরপর কার্ড ব্যবহার করেও টাকা বের করতে দেখা যায়। এর আগে রোববার কুমিল্লার কলেজ রোডের বুথের ফুটেজেও একই ব্যক্তিকে দেখা যায়। ফুটেজে দেখা যায়, ওই ব্যক্তিই লাল-কালো রঙের শার্ট গায়ে বুথের ভেতরে ঢুকছেন। একই কায়দায় তিনি এটিএম মেশিনের সামনের অংশ খুলে ভেতরে কিছু স্থাপন করে সেটি লাগিয়ে দেন। এরপর টাকা বের করে চলে যান। ঠিক ওই সময়েই আকাশি রঙের শার্ট পরে অপর এক ব্যক্তিকে বুথের ভেতরে ঢুকে টাকা তুলতে দেখা যায়।

জানতে চাইলে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের-পূর্ব বিভাগের এডিসি সাহিদুর রহমান সমকালকে বলেন, চট্টগ্রাম ও কুমিল্লায় পূবালী ব্যাংকের বুথে জালিয়াতির তথ্য তারা পেয়েছেন। দুটি বুথ থেকে প্রাথমিকভাবে ৯ লাখ ৬০ হাজার টাকা লুটের তথ্য মিলেছে। ডাচ্‌-বাংলা ব্যাংকের বুথ জালিয়াতির সঙ্গে ওই চক্রটি জড়িত কি-না তা যাচাই করা হচ্ছে। ফুটেজে দেখা যাওয়া দুই ব্যক্তিকে চিহ্নিত করে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

চট্টগ্রামের শেখ মুজিব রোডের বুথটি নগরীর ডবলমুরিং থানা এলাকায় পড়েছে। ওই থানার ওসি সুদীপ কুমার দাস সমকালকে বলেছেন, পূবালী ব্যাংক কর্তৃপক্ষ তাকে মৌখিকভাবে জানিয়েছে। ঢাকায় ব্যাংকটির হেড অফিসের কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগের পর মামলার কথা জানানো হয়েছে।

কুমিল্লার কলেজ রোডে স্থাপিত বুথের অবস্থান স্থানীয় কোতোয়ালি থানা এলাকায়। ওই থানার ওসি আনোয়ারুল হক জানিয়েছেন, ব্যাংক কর্তৃপক্ষ অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামি করে মামলা করেছে। ঘটনাটির তদন্ত চলছে।