মানুষের দুর্দশায় পাশে দাঁড়ানোই আ'লীগের ঐতিহ্য : ওবায়দুল কাদের

প্রকাশ: ৩১ জুলাই ২০২০

সমকাল প্রতিবেদক

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, মানুষের দুর্দশায় পাশে দাঁড়িয়ে মানবিক সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেওয়াই আওয়ামী লীগের সাত দশকের ঐতিহ্য। বৃহস্পতিবার সরকারি বাসভবন থেকে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে দলের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ উপ-কমিটির উদ্যোগে করোনাভাইরাস প্রতিরোধ সামগ্রী ও বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের মাঝে প্রতিনিধিদের মাধ্যমে শুকনো খাবার বিতরণ করা হয়।

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, করোনার পাশাপাশি ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা ও বন্যাদুর্গত মানুষের কল্যাণে দলীয় নেতাকর্মীদের মানবিক অংশগ্রহণ অব্যাহত আছে। খাদ্য, নগদ অর্থ, চিকিৎসা সহায়তা ও সুরক্ষা সামগ্রী নিয়ে এসব ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন নেতাকর্মীরা। দেশের প্রতিটি অর্জনের সঙ্গে রয়েছে আওয়ামী লীগ। তেমনি দেশের প্রতিটি দুর্যোগ ও সংকটে জনমানুষের পাশে রয়েছে এই দলটি।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রতিটি বিষয়ে নজরদারি করছেন এবং নির্দেশনা দিচ্ছেন। করোনা মোকাবিলায় নানা সীমাবদ্ধতা সত্ত্বেও শেখ হাসিনা সরকার সংক্রমণ রোধ, চিকিৎসা ও মানুষের সুরক্ষায় কাজ করছে। ইতোমধ্যেই স্বাস্থ্য বিভাগে শুদ্ধি অভিযান শুরু হয়েছে। শেখ হাসিনার নিবিড় মনিটরিংয়ের ফলে সমন্বয়হীনতা কমে এসেছে, বাড়ছে সমন্বয়।

ওবায়দুল কাদের বলেন, শেখ হাসিনার নিরলস শ্রম, মানবিক নেতৃত্ব ও দক্ষতার কারণে অন্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশের সংক্রমণ অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে। তবে এ নিয়ে আত্মতুষ্টিতে ভোগা চলবে না। যে কোনো সময় তা অবনতির দিকে যেতে পারে।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী এমপি বলেন, আওয়ামী লীগকে দুর্গত মানুষের কল্যাণ ও ত্রাণের জন্য ডাক দিতে হয় না। আওয়ামী লীগ নিজ থেকেই ত্রাণ নিয়ে ছুটে যায় জনগণের কাছে।

ধানমন্ডির কার্যালয়ে এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা ও উপ-দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান।