রূপগঞ্জে যৌতুকের কারণে গৃহবধূ হত্যা

হাতিয়ায় স্বামীর পরকীয়ার বলি আরেকজন

প্রকাশ: ২২ অক্টোবর ২০২০

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) ও হাতিয়া (নোয়াখালী) প্রতিনিধি

রূপগঞ্জে যৌতুকের কারণে গৃহবধূ হত্যা

রূপগঞ্জে নিহত চাঁদনী বেগম

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে যৌতুকের জন্য এবং নোয়াখালীর হাতিয়ায় পরকীয়ায় বাধা দেওয়ায় গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্বামী ও তাদের পরিবারের লোকজনের বিরুদ্ধে। গত মঙ্গলবার রাতে ও গতকাল বুধবার দুপুরে পৃথক এ ঘটনা ঘটে।

গতকাল সকালে রূপগঞ্জ উপজেলার কায়েতপাড়া ইউনিয়নের পূর্বগ্রাম থেকে পুলিশ গৃহবধূ চাঁদনী বেগমের লাশ উদ্ধার করে। চাঁদনী কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার মইছালের সামিমুল হক সোহেলের মেয়ে। অপর ঘটনায় নোয়াখালীর হাতিয়া পৌরসভার ১নং চরকৈলাশ গ্রাম থেকে গৃহবধূ আয়েশা আক্তার প্রিয়ার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

চাঁদনীর বাবা সামিমুল হক সোহেল জানান, তার মেয়ের সঙ্গে পূর্বগ্রামের জাহাঙ্গীর মিয়ার ছেলে অনিক মিয়ার প্রেমের সম্পর্ক ছিল। চার মাস আগে পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করে তারা। বিয়ের প্রথম তিন মাস তাদের সংসার ভালোই চলছিল। এক মাস ধরে যৌতুকের জন্য চাপ দিতে থাকে স্বামী ও তার পরিবারের লোকজন। তাকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনও করা হতো। মঙ্গলবার রাতে মারধরের এক পর্যায়ে শ্বাসরোধে হত্যা করে চাঁদনী আত্মহত্যা করেছে বলে তারা প্রচার চালায়। রূপগঞ্জ থানার ওসি মাহমুদুল হাসান বলেন, চাঁদনীর বাবা সোহেল বাদী হয়ে সাতজনের নামে হত্যা মামলা করেছেন। আসামিদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে।

এদিকে স্বামীর পরকীয়ায় বাধা দেওয়ায় নোয়াখালীর হাতিয়া পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের চরকৈলাশ গ্রামের গৃহবধূ আয়েশা আক্তার প্রিয়াকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। নিহতের পিতা আলমগীর হোসেনের অভিযোগ- তার মেয়েকে দীর্ঘদিন ধরে নির্যাতন করে আসছিল স্বামী ইদ্রিস। গতকাল সকালে মেয়েকে ব্যাপক নির্যাতন করে স্বামী ও তার পরিবারের সদস্যরা। পরে অবস্থা সংকটাপন্ন হয়ে পড়লে তার মুখে বিষ ঢেলে দেয়। তখন তারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। এর কিছু সময় পরই আয়েশা মারা যায়। হাতিয়া থানার ওসি (তদন্ত) কাঞ্চন কান্তি দাস জানান, পারিবারিক কলহের জেরে মেয়েটি বিষপানে আত্মহত্যা করেছে বলে শুনেছি। তবে মেয়ের বাবা থানায় লিখিত অভিযোগ দিলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।