সারাদেশের প্রায় ৭০ হাজার ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে গতকাল জমি ও ঘর দিয়েছে সরকার। এর মধ্যে ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ের এক সাবেক এমপিও ঘর পেয়েছেন। এক সময়ের প্রভাবশালী ওই এমপির ঘর নেওয়ার খবরে অনেকেই বিস্মিত হয়েছেন।

জাতীয় পার্টির সাবেক এমপি এনামুল হক জজ মিয়া দীর্ঘদিন গফরগাঁওয়ের একটি প্রত্যন্ত গ্রামে এক রুমের এক বাসায় ভাড়ায় থাকতেন। গতকাল ঘর পেয়ে তিনি বলেন, 'এক সময় আমার সবই ছিল। বর্তমানে আমি নিঃস্ব। আমার এই অসহায় অবস্থায় আমাকে একটি ঘর প্রদান করায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য ফাহ্‌মী গোলন্দাজ বাবেলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।'

পরে তিনি সমকালকে বলেন, 'আমি ক্যাডেট হিসেবে পশ্চিম পাকিস্তানে অধ্যয়নরত অবস্থায় পরিচয় হয়েছিল এইচএম এরশাদ (সাবেক রাষ্ট্রপতি) সাহেবের সঙ্গে। সেই পরিচয়ের সুবাদেই এরশাদের পালিত কন্যা নাজমা খাতুনের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হই। এরশাদ ক্ষমতায় আসার পর জাতীয় পার্টি থেকে নমিনেশন পেয়ে গফরগাঁও থেকে এমপি নির্বাচিত হই। আমি একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা।'

তবে এক সময় এমপি হলেও পরে তার জীবনে বিপর্যয় নেমে আসতে শুরু করে। এক পর্যায়ে নাজমা তাকে ডিভোর্স দিয়ে অন্যজনকে বিয়ে করে বিদেশে পাড়ি জমান। পরে রাজধানীর মিরপুরে এক শিক্ষিকাকে বিয়ে করেন তিনি। সেখানে তার দুই মেয়ে রয়েছে।

তিনি বলেন, পিতার সব সম্পত্তি বিক্রি করে রাজধানী ঢাকায় জমি কিনে বাড়ি করেন। এটা তার দ্বিতীয় স্ত্রী-সন্তানের নামে ছিল। কিন্তু স্ত্রীর সঙ্গে বনিবনা না হওয়ায় তিনি গফরগাঁওয়ে গিয়ে বাস করতে শুরু করেন। সেখানে তৃতীয় স্ত্রীর সঙ্গে মানবেতর জীবন কাটাচ্ছেন তিনি। তাদের একটি মেয়ে আছে।

এনামুল হক বলেন, 'এখন আমি নিঃস্ব। সহায়-সম্পত্তি কিছুই নেই আমার। রিকশা ভাড়া জোগার করতে না পারায় হেঁটে চলতে হয়।' উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি মজিবুর রহমান বলেন, প্রথম স্ত্রী ছেড়ে যাওয়ার পর এলোমেলো জীবনযাপন শুরু করেন এনামুল হক জজ মিয়া।

গতকাল শনিবার সকালে গফরগাঁও উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে এনামুল হকসহ ২০০ পরিবারের মধ্যে জমি ও ঘর প্রদান করা হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্থানীয় সংসদ সদস্য ফাহ্‌মী গোলন্দাজ বাবেল, উপজেলা চেয়ারম্যান আশরাফ উদ্দিন বাদল, পৌর মেয়র এসএম ইকবাল হোসেন সুমন, ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ আতাউর রহমান, সহকারী কমিশনার (ভূমি) কাবেরী রায়, গফরগাঁও প্রেস ক্লাবের সভাপতি আবদুল্লাহ্‌ আল-আমিন (বিপ্লব), ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল মনি, রোকছানা বেগম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য করুন