বরিশালের বানারীপাড়া উপজেলায় মুজিববর্ষে ভূমিহীন ও গৃহহীনদের জন্য 'প্রধানমন্ত্রীর উপহার' আশ্রয়ণ প্রকল্পের আওতায় নির্মাণাধীন ১২টি ঘরের ৩২টি পিলার ভেঙে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা। দু'দিন আগে পিলার ভাঙা হলেও সোমবার রাতে মামলা হওয়ার পর বিষয়টি জানাজানি হয়।

এ ঘটনায় চাখার ইউনিয়নের সহকারী ভূমি কর্মকর্তা (তহশিলদার) মো. বাদশা বাদী হয়ে বানারীপাড়া থানায় সাকরাল গ্রামের সুমন কাজিসহ (২৭) অজ্ঞাত তিন-চারজনকে আসামি করে মামলা করেছেন। তাকে গ্রেপ্তার করতে পুলিশ বাড়িতে অভিযানও চালিয়েছে।

চাখার ইউনিয়নের সাকরাল গ্রামে দুই একর খাসজমির ওপর ৬৫টি গৃহের নির্মাণকাজ চলছে। এগুলোর প্রতিটির নির্মাণ ব্যয় হচ্ছে এক লাখ ৭১ হাজার টাকা। নির্মাণাধীন ৬৫টি ঘরের মধ্যে ১২টির ৩২টি পিলার রাতের আঁধারে কে বা কারা ভেঙে ফেলেছে।

সুমন কাজীসহ স্থানীয় কয়েকজন সম্প্রতি আশ্রয়ণ প্রকল্পের গৃহনির্মাণে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ তোলেন বলে জানা গেছে। তাদের মতে, ঘর তৈরিতে ভিটি বালু দিয়ে গাঁথুনি ও কম পরিমাণ রড ব্যবহার করা হচ্ছে। সেখানে শ্রমিকদের রান্নার কাজে নিয়োজিত নারীকে নিয়েও বিভিন্ন অভিযোগ তোলেন তারা।

স্থানীয় অধিবাসী ও শ্রমিকরা জানান, ২১ ফেব্রুয়ারি রাতে সুমন কাজী ও তার লোকজন নির্মাণ শ্রমিকদের ব্যারাকে এসে একজনকে মারধর করে। খবর পেয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য দিপু দত্ত সেখানে যান এবং পরিস্থিতি শান্ত করেন। তিনি বিষয়টি রাতেই ইউনিয়ন চেয়ারম্যান খিজির সরদারকে জানান। শ্রমিকরা সকালে উঠে দেখেন ৩২টি পিলার ভেঙে ফেলা হয়েছে।

চেয়ারম্যান খিজির সরদার সমকালকে বলেন, ইউপি সদস্য দিপু তাকে রাতেই ঘটনা জানিয়েছিলেন। তিনি তাদের আশ্বাস দিয়েছিলেন, সকালে বিষয়টি দেখা হবে। কিন্তু ওই রাতেই কে বা কারা পিলারগুলো ভেঙে ফেলে।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রিপন কুমার সাহা জানান, আশ্রয়ণ প্রকল্পটি মুজিববর্ষে ভূমিহীন ও গৃহহীনদের জন্য প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার উপহার। এতে নিম্নমানের কাজ হচ্ছে- এমন অভিযোগ তাদের কাছে কেউ করেনি। তিনি ঘটনাস্থল পরির্দশন করেছেন। যারা পিলার ভেঙেছে, তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্তব্য করুন